Breaking News
তীব্র এসিডোসিসের সমাধান
তীব্র এসিডোসিসের সমাধান

গরুর তীব্র রুমেন এসিডোসিস হলে বা পেট ফেঁপে গেলে দ্রুত নিরাময়ের জন্য একটি কার্যকরী সাস্পেনশন বানানোর প্রক্রিয়াঃ

গরুর তীব্র রুমেন এসিডোসিস হলে বা পেট ফেঁপে গেলে দ্রুত নিরাময়ের জন্য একটি কার্যকরী সাস্পেনশন বানানোর প্রক্রিয়াঃ
অনেক সময় দেখা যায় খামারের ষাঁড় বা গাভীগুলির প্রায়শই তীব্র রুমেন এসিডোসিস দেখা দেয় যার ফলে রুমেন এসিডোসিসে আক্রান্ত ষাঁড় বা গাভীর পেটে গ্যাস হয় বা পেট ফেঁপে যায়,ক্ষুধামান্দ্য দেখা দেয়। তীব্র রুমেন এসিডোসিস কিন্তু ক্ষেত্র বিশেষে প্রাণঘাতিও হয়ে থাকে। তীব্র রুমেন এসিডোসিসের ফলে গরু অনেক সময় মারাও যায়! তাই এটাকে মোটেও অবহেলা করা ঠিক নয়।
আজকে খামারী ভাইয়েদের গরুর এই তীব্র রুমেন এসিডোসিস নিরাময়ের জন্য একটি সাস্পেনশন তৈরীর প্রক্রিয়া শিখিয়ে দিচ্ছি যা খুবই কার্যকরী । এই সাস্পেনশনটি বানানোর জন্য যে সব উপাদান লাগবে তা আপনারা সহজেই ক্যামিক্যালের দোকান থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন। সাস্পেনশনটি বানাতে আপনাদের যেই উপাদান গুলি লাগবে তা ক্রমানুসারে নীচে উল্লেখ করছি।
১। ৫০০ গ্রাম খাওয়ার সোডা।
২। ৮৫০ সি.সি ফরমালডিহাইড ( ফরমালডিহাইডের কাজ হলো মাল্টিপ্লাইড ক্ষতিকর ব্যাক্টেরিয়া গুলিকে মেরে ফেলা)।
৩। ২০ গ্রাম ম্যাগনেসিয়াম অক্সাইড।
৪। ৪০ গ্রাম চারকোল বা মিহি কয়লার গূড়া।
৫। ২ লিটার বিশুদ্ধ পানি।
প্রস্তুত প্রনালীঃ
এখন সব গুলি উপাদান একটি প্লাস্টিকের জেরিক্যান বা বোতলে নিয়ে ১৫-২০ মিনিট ভালো করে ঝাঁকিয়ে মিশিয়ে নিবেন। ব্যাস, হয়ে গেলো আপনার সাস্পেনশন তৈরী!
প্রয়োগের মাত্রাঃ
এখন প্রশ্ন হলো আপনার তীব্র রুমেন এসিডোসিসে আক্রান্ত গরুকে এটা কি পরিমাণে খাওয়াবেন?
সেটাও বলে দিচ্ছি, আক্রান্ত প্রতি ১০০ পাউন্ড বা ৪৫ কেজি লাইভওয়েট সম্পন্ন গরুকে ১০০ মিঃলিঃ সাস্পেনশন খাওয়াবেন।
সতর্কতাঃ সাস্পেনশন সেবন করানোর সময় সেটা যাতে কোনভাবেই গরুর শ্বাস-নালীতে না যায়।
• এটা গর্ভবতী গাভী,বাছুর এমনকি ছাগলকেও খাওয়াতে পারেন।




লেখকঃ  মুক্তি মাহমুদ

তীব্র এসিডোসিসের সমাধান

Please follow and like us:

About admin

Check Also

টিকা ও ওষুধের ব্যবহার পদ্ধতি (এম এ ইসলাম)

টিকা ও ওষুধের ব্যবহার পদ্ধতি  টিকা ও ওষুধের সঠিক ব্যবহার রোগপ্রতিরোধ ও নিরাময় নিশ্চিত করে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »
error: Content is protected !!