Breaking News

কিভাবে বুঝবেন বিড়াল প্রেগন্যান্ট এবং কোন লক্ষণ গুলো দেখলে বুঝবেন বিড়াল শীঘ্রই বাচ্চা জন্ম দেবে?

কিভাবে বুঝবেন আপনার বিড়াল প্রেগন্যান্ট?

যদি আপনার বিড়ালটি সম্প্রতি Heat Cycle এ ছিল এবং একটি পুরুষ বিড়ালের সংস্পর্শ পেয়ে থাকে তাহলে আপনার বিড়াল গর্ভবতী হওয়ার সম্ভাবনা খুবই বেশি। গর্ভবতী বিড়ালের শারীরিক এবং আচরন উভয় পরিবর্তন হতে শুরু করবে যা প্রজননের তিন সপ্তাহ পরে আরও স্পষ্ট হয়ে উঠবে।

বিড়ালদের গর্ভধারণের সময়কাল 60 থেকে 67 দিন। আরোও মনে রাখা সহজ মানুষের গর্ভধারণের সময়কাল ৯ মাস এবং বিড়ালের হচ্ছে ৯ সপ্তাহ।

>>গর্ভবতী বিড়ালের মধ্যে শারীরিক পরিবর্তনঃ

০১। বিড়ালের Heat Cycle বন্ধ হয়ে যাওয়াঃ
যদি কোনও বিড়াল প্রতি ১০ দিন থেকে দুই সপ্তাহ ধরে Heat Cycle এর মধ্য দিয়ে চলেছে, এবং হঠাৎ তা বন্ধ হয়ে যায়, তাহলে বুঝতে হবে বিড়ালটি গর্ভবতী হয়েছে।

০২। নিপলস ফুলে যাবে এবং এর রঙ হবে Rosierঃ
ব্রিডাররা একে “পিংকিং” বলে! এবং এটি প্রথম ভিজ্যুয়াল চিহ্ন হতে পারে যা আপনার গর্ভবতী বিড়ালের মধ্যে দেখতে পাবেন।

০৩। স্বাভাবিক এর চেয়ে বেশি ক্ষুধার্ত হওয়াঃ
গর্ভবতী বিড়াল খাবারের প্রতি আগ্রহ বাড়িয়ে তুলবে। সর্বোপরি, গর্ভবতী বিড়াল কেবল নিজের জন্যই নয়, বেশ কয়েকটি ভ্রূণের জন্য খাচ্ছে।

০৪। ওজন বৃদ্ধি পাওয়াঃ
বেশিরভাগ গর্ভবতী বিড়াল (রানী) গর্ভাবস্থায় প্রায় দুই থেকে চার পাউন্ড ওজন বাড়িয়ে তুলবে।

০৫। সম্ভাব্য বমি বমি ভাবঃ
বমি বমি ভাব বা বমি হতে পারে এটি নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কারণ নেই, তবে যদি বমি ভাব অব্যাহত থাবে বা বেশি বমি করে এবং দুর্বল হয়ে যায় তাহলে দ্রুত ভেট এর যোগাযোগ করুন।

০৬। পেটের বৃদ্ধি:
গর্ভাবস্থার পঞ্চম সপ্তাহের মাথায় বিড়ালের পেটে লক্ষণীয়ভাবে ফুলে উঠতে শুরু করবে। এটি বার্থিংয়ের সময় অবধি বড় হওয়া অব্যাহত থাকবে।

গর্ভবতী বিড়ালের আচরনগত পরিবর্তনঃ

০১। স্নেহ বৃদ্ধি:
সবদিক দিয়ে, আপনার বিড়াল স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি স্নেহময় হয়ে উঠতে পারে এবং প্রায়শই আপনার দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারে।সুতরাং এই অবস্থায় বিড়ালের প্রতি যত্নবান হোন!

০২। বেশি ঘুমানোঃ
অনেক গর্ভবতী বিড়াল আগের তুলনায় দিনে আরও ২-৩ ঘন্টা বেশি ঘুমাবে।

০৩। গর্ভবতী বিড়ালের দ্বারা বাসা বাঁধার প্রবনতা:
বাসা বাঁধার কার্যক্রমগুলি গর্ভাবস্থার প্রাথমিক লক্ষণ নয়, তবে বার্থিংয়ের সময় হওয়ার সাথে সাথে গর্ভবতী বিড়ালটি জন্মদানের জন্য নিঃশব্দে/নিরিবিলি জায়গাগুলির সন্ধান করবে।

কোন লক্ষণ গুলো দেখলে বুঝবেন আপনার বিড়াল শীঘ্রই বাচ্চা জন্ম দেবে?

জন্মদানের স্থান নির্ধারন : জন্মের সময় ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে গর্ভবতী বিড়াল জন্মের জন্য নিরিবিলি ও গোপন জায়গা খুঁজে নিবে। এটি সাধারণত জন্মদানের দু’দিন আগে শুরু হয় তবে এটি কয়েক ঘন্টা আগেও হতে পারে।

অস্থিরতা: Labor এর প্রায় 24 থেকে 48 ঘন্টা আগে গর্ভবতী বিড়াল অস্থির বা উদ্বিগ্ন হয়ে উঠবে।

ভোকালাইজেশন: গর্ভবতী বিড়াল ম্যাও ম্যাও করবে এবং স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি চিৎকার করতে পারে।

শারীরিক তাপমাত্রা হ্রাস : বিড়ালের স্বাভাবিক তাপমাত্রা সাধারণত 100.5 এবং 102.5F এর মধ্যে থাকে কিন্তু Labor এর 24 ঘন্টার মধ্যে গর্ভবতী বিড়ালের দেহের তাপমাত্রা 100F এর নিচে নেমে আসবে।

ক্ষুধা হ্রাস: Labor এর কাছাকাছি সময়ে গর্ভবতী বিড়ালের ক্ষুধা কমে যাবে।

Vulva চাঁটা : Labor দ্রুত এগিয়ে আসার সাথে সাথে বিড়াল হালকা স্রাব পরিষ্কার করার জন্য তার ভালভাকে চাটতে শুরু করবে। এবং এই জায়গা পরিষ্কার রাখবে।

উপরোক্ত লক্ষণ দেখা মাত্রই বুঝবেন এবার আপনার বিড়াল বাচ্চা জন্মের জন্য প্রস্তুত!

Please follow and like us:

About admin

Check Also

বয়সভেদে বিড়ালের খাবার

বয়সভেদে বিড়ালের খাবার! বিড়ালকে কি খাওয়নো যাবে আর কি খাওয়ানো যাবে না, তা নিয়ে আমাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »
error: Content is protected !!