Breaking News
ডি ভি এম ডিগ্রি
ডি ভি এম ডিগ্রি

ডি ভি এম ডিগ্রি প্রাপ্তদের চাকরীর সুযোগ সুবিধা

ডি ভি এম ডিগ্রি প্রাপ্তদের চাকরীর সুযোগ সুবিধা

👀👀 : DVM👀👀
—-Doctor of Veterinary Medicine —–
সাবজেক্ট রিভিও:
১. অন্য পিউর কিংবা অন্যান্য সাবজেক্টে অনার্স পড়ার চাইতে ভেটেরিনারী নি:সন্দেহে একটি ভালো পছন্দ হতে পারে।
২. WHO অনুযায়ী শুধুমাত্র মেডিকেল,ডেন্টাল ও ভেটেরিনারি স্টুডেন্টরাই ডিগ্রী শেষে নামের আগে ডাক্তার শব্দটি
বসানোর যোগ্যতা অর্জন করে।
৩. ভেটেরিনারি নিশসন্দেহে একটি ব্যয়বহুল সাবজেক্ট,একজন ভেটেরিনারি ডাক্তার তৈরিতে সরকারের প্রচুর ফেসিলিটি ও
ইনভেষ্ট করতে হয় যা পাবলিক ইউনিভার্সিটি ছাড়া পড়া সম্ভব নয়।
৪. একজন ভেটেরিনারি ডাক্তার হতে হলে তাকে কঠোর পরিশ্রমী ও মেধাবী হতে হয়,,

এখানে পড়তে হলে যে সব বিষয় অধ্যায়ন করতে হয় তা হলো :

এনাটমি

হিস্টোলজি

প্যাথলজি

প্যারাসাই­টোলজি
ফিজিওলজি

বায়োক্যামিস্ট্রি

ফার্মাকোলজি ও

থেরাপিউটিক্স

টক্সিকোলজি

মাইক্রোবায়­লজি

ব্যাক্টেরিওলজি

ভাইরোলজি
সেরোলজি

মেডিসিন

সার্জারী

ভেটেরিনারি এপিডিমিওলজি

গাইনীকোলজী ও অবস্ট্রাট্রিক্স

থ্রেরিওজেনোলজি
রেডিওলজী-

ল্যামনেস এন্ড সাউন্ডন্যাস

অপারেটিভ সার্জারী
পরিসংখ্যান,

গ্রামীন সমাজবিজ্ঞান

কৃষি অর্থনীতি

মার্কেটিং

কৃষি সম্প্রসারন বিদ্যা

ভেটেরিনারি পাবলিক হেলথ সহ সম্বনিত হাসবেন্ডারী সাবজেক্ট সমূহ

যেমন:

এনিমেল সাইন্স,

এনিমেল নিউট্রিশন,

এনিমেল জেনেটিকস এন্ড ব্রিডিং,

পোল্ট্রি সাইন্স,

পোল্ট্রি নিউট্রিশন,

ডেইরী সাইন্স,

ডেইরী প্রোডাক্ট টেকনোলজি ,

হেচারি মেনেজমেন্ট সহ প্রভৃতি বিষয়াদি।
৫. একজন ভেটেরিনারি গ্রাজুয়েটকে এসব কঠিন সাবজেক্ট আয়ত্তস্হ করার পাশাপাশি প্রাণি জগতের হিউম্যান স্পিসিস সহ প্রায় ১৪-১৫ টি স্পিসিস সম্বন্ধে জ্ঞান রাখতে হয় যা নিসন্দেহে একটি টাফেষ্ট ও হার্ডেষ্ট সাবজেক্ট।

জেনে রাখা ভালো:

প্রাণিজগতের প্রায় সকল এনিমেলের এনাটমি ও ফিজিওলজি more অর less simillar তাই ‘Doctor of Human medicine-DHM’ এবং ‘Doctor of veterinary medicine-DVM ‘কে আলাদা করে দেখার সুযোগ নেই।

মেডিকেল সাইন্সের ক্ষেত্রে ভেটেরিনারি ও মেডিকেল কোন আলাদা বিষয় নয় শুধুমাত্র স্পিসিস importance অনুযায়ী কিছু কিছু বিষয় মেডিকেল ও ভেটেরিনারিতে আলাদা করে পড়তে হয়

তাছাড়া বাকি সব বিষয়গুলো সবই এক।
৬.ভেটেরিনারি পড়াশোনার শেষ বছরে কিছু কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে দেশের বাইরে ইন্টার্ণশীপের সুযোগ রয়েছে, যা ছাত্র-
ছাত্রীদের ভবিষ্যৎ জীবন উন্নয়নে অনেক ভূমিকা রাখে।
* কারিকুলামের অংশ হিসেবে ভেটেরিনারি স্টুডেন্টদের ৬ মাস ইন্টার্নী করতে হয়। (ইন্টার্নী ভাতা ১৫,০০০ টাকা)।
*এছাড়া টেকনিক্যাল সাবজেক্ট হওয়ায় ভেটেরিনারি UGC কর্তৃক স্টাইফেনের অন্তর্ভূক্ত ।

৭. বর্হিবিশ্বে scholarship এর দ্রুত সুযোগ ভেটেরিনারি মত অন্য কোন subject এ সম্ভব নয়।

৮. দেশের বাইরে বিভিন্ন দেশে যেমন অস্ট্রেলিয়া,নিউজিল্যান্ড, জাপান,কানাডা, ফিনল্যান্ড, আমেরিকাসহ উন্নত
দেশগুলোতে সম্মানজনক চাকুরির সুযোগ ভেটেরিনারী পেশার ক্ষেত্র সহজ যা ইন্টারনেট ভিজিট করলেই বোঝা যাবে।

এ সব দেশ গুলোতে উন্নত বেতনের লোভনীয় অফার রয়েছে ,পদ ও যোগ্যতা অনুযায়ী লাখ লাখ টাকা উপার্জন করা যায়।

৯. দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় হতে একই common subject হতে প্রচুর ছাত্র-ছাত্রী এক সাথে বের হয়, ফলে চাকুরির বাজারে স্বল্প বেতনেরও চাকুরি খুঁজতে জুতার তলা ক্ষয় করতে হয়, অন্য দিকে veterinary graduate দের চাকুরির বেতন শুরু হয় ৩০,০০০-8০,০০০ টাকার মধ্যে ।
১০. DVM পাশ করার পর নিজস্ব সাবজেক্ট সহ যেকোন উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে microbiology, biochemistry,pharmac­y সহ অন্য Subject এ MS করার সুযোগ রয়েছে।

১১. BCS এ Veterinary graduate দের জন্য special cota রয়েছে।

এছাড়া BCS এ VET রা অনান্য ক্যাডারেও প্রতিযোগিতা করতে পারবে।

১১. বিভিন্ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান, যেমন ICDDRB,BLRI, LRI, FRI এগুলোতে বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করার ও বিদেশ ভ্রমনের সুযোগ রয়েছে।

১১. সেনাবাহিনীতে ভেটেরিনারি ক জন্য রয়েছে নির্দিষ্ট কোর যার নাম RVFC(Remount Veterinary and Farm core) এবং বছরে ২ বার এ সুযোগ পাওয়া যায় সরাসরি সেকেন্ড লেফটেনেন্ট হিসেবে।

১২. আন্তর্জাতিক এবং দেশীয় ঔষধ কোম্পানীগুলোতে ভেটেরিনারিয়ানদের জন্য নির্দিষ্ট আসন রয়েছে।

১৩. বিভিন্ন livestock product company যেমন-Ice cream, juice, butter, candy, cola, milk & meat industry তে কাজ করার অপার সুযোগ।

বিভিন্ন কোম্পানী যেমন- Pran, Milk vita, Arong,Aftab, RD Milk, BRAC meat, Bengal Meat ইত্যাদি
কোম্পানীতে ৬টি বোনাসসহ গাড়ী ও বাড়ি সুবিধা সহ হেন্ডসাম সেলারি ৩০,০০০-৪০,০০০ টাকার চাকুরির সুযোগ ।

১8. এছাড়া বিভিন্ন NGO/ project এ available কাজ করার সুযোগ রয়েছে। যেমন- CLP PKSF, BRAC ইত্যাদি বেতন
-২৫,০০০-৩০,০০০ টাকার মধ্যে।

১৫. দেশের বিভিন্ন feed mill,hatchery এ আকর্ষণীয় বেতনের চাকুরীর সুযোগ রয়েছে। যেমন –Kazi farms, Aftab, Paragoan, Nourish, Anchor feeds, Dhaka hatchary, Eggs & Hens, Rafid,Universal, Goalanda, Denim, Bangladesh hatchery ইত্যাদি।

১৬. নিজস্ব প্যাক্টিস ও পেট ডক্টর হিসেবেও দেশে বিদেশে সম্মানজনক জীবিকার সুযোগ রয়েছে ।

বলা বাহুল্য একজন ভেটেরিয়ানের ডাক্তারি থেকে মাসিক আয় একজন হিউম্যান ডাক্তারের চেয়ে কোন অংশে কম নয়।

১৭. অনেকের মধ্যে একটা থাকে যে, confusion ভেটেরিনারি পড়ে অন্য কোন চাকরী করা যাবে কিনা? তাদের জন্য বলি
চিন্তার কোন কারণ নাই।কেউ যদি ডাক্তারী পেশা হিসেবে নিতে ইচ্ছুক না হয়,তাহলে এই গ্রাজুয়েশন ডিগ্রি দিয়ে বিভিন্নঅফিস,ব্যাংক এ মর্যাদাপূর্ন চাকরী করা যাবে।

১৮. বিভিন্ন চিড়িয়াখানায়, সাফারী পার্কে ,সুন্দরবনে বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও চিকিৎসক হিসেবে চাকুরীর সুযোগ রয়েছে।

১৯. বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ম্যাগাজিন,পাবলিকেশন,­organization যেমন UNESCO,UNICEF,WHO, UN,FAO তে চাকরীর সুযোগ রয়েছে।

২০. বিভিন্ন আন্তর্জাতিক Media যেমন- Animal Planet,Discovery, National Geography এগুলোতে Handsome বেতনের চাকরীর সুযোগ।

কালেক্টেড

ভেটেরিনারি শিক্ষা কি?
কৃষিপ্রধান বাংলাদেশে ৮০ শতাংশ মানুষ প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে কৃষির উপর
নির্ভরশীল। কৃষিখাত ব্যাপকভাবে প্রাণিসম্পদের উপর নির্ভরশীল। প্রাণিসম্পদের উন্নয়ন ছাড়া কৃষিখাতকে এগিয়ে নেয়া সম্ভব নয়।

আর প্রাণিসম্পদের উন্নয়নের জন্য প্রয়োজন দক্ষ ভেটেরিনারিয়ান।
ভেটেরিনারি হল পশুপালন বিদ্যা ও পশু চিকিৎসা বিদ্যার একত্রিত রুপ।

আধুনিক উপায়ে পশুপালন, প্রজনন, চিকিৎসা প্রভৃতি বিষয়ে একজন ভেটেরিনারিয়ানকে জ্ঞান অর্জন করতে হয়।
ভেটেরিনারিয়ান বা ভেট মূলত তাদেরকেই বলা হয় যারা সকল ধরণের প্রাণিসম্পদ ও পোল্ট্রির চিকিৎসা করে থাকে। সুতরাং,প্রাণিসম্পদের সার্বিক উন্নয়ন এবং এ খাতের উজ্জ্বল ভবিষ্যত নিশ্চিতকরণে একজন ভেটেরিনারিয়ানের গুরুত্ব অনস্বীকার্য।

বর্তমানে বাংলাদেশে নিবন্ধনকৃত ভেটেরিনারিয়ানের সংখ্যা ছয় সহস্রাধিক।

প্রতি বছর প্রায় ৭৫০ জন ভেটেরিনারি ডাক্তার বের হচ্ছে।


কোথায় পড়বেন?
বাংলাদেশে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে ১৯৬১ সালে ময়মনসিংহের বাকৃবিতে (বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়)
ভেটেরিনারি অনুষদ চালুর মাধ্যমে এই শিক্ষার শুরু হয়।

এরপর ভেটেরিনারি শিক্ষার জন্য একে একে গড়ে উঠেছে এগারটিপ্রতিষ্ঠান।

এগুলো হলো- রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি),
শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (শেকৃবি),

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি এন্ড এনিমেল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু),

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরকৃবি),

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি),
পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (পবিপ্রবি),
সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (সিকৃবি),

ঝিনাইদহ সরকারিভেটেরিনারি কলেজ
(ঝিসভেক),

গণ বিশ্ববিদ্যালয়(গবি) ও

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানবিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি)।
এদের মধ্যে চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি এন্ড এনিমেল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশে ভেটেরিনারি শিক্ষার জন্য একমাত্র
বিশেষায়িত বিশ্ববিদ্যালয়।
এছাড়া, সম্প্রতি সিরাজগঞ্জে একটি ভেটেরিনারি কলেজের নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে এবং
সেখানে আগামী বছর থেকে শিক্ষাবর্ষ থেকে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানা গেছে।


কেন পড়বেন?
পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ বিশেষ করে ইউরোপসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মতো বাংলাদেশেও প্রাণিসম্পদের গুরুত্ব বাড়ছে।
অ্যানথ্রাক্স, বার্ড ফ্লু প্রভৃতির মতো ভয়াবহ জেনেটিক রোগের প্রাদুর্ভাবের ফলে ভেটেরিনারিয়ানদের গুরুত্বওআরো বেড়ে গেছে। সরকার প্রাণিসম্পদের গুরুত্ব বিবেচনা করে নতুন নতুন পদখেপ নিচ্ছে।

 Vet Md Uzzol Hossain

Please follow and like us:

About admin

Check Also

খামারীদের কেমন পরামর্শ দেয়া উচিত,কোনটা উচিত না এবং কিছু আলোচনা।

খামারীদের কেমন পরামর্শ দেয়া উচিত,কোনটা উচিত নাএবং কিছু আলোচনা। খামারীদের পরামর্শ দিতে গিয়ে যাতে সেটা …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »
error: Content is protected !!