Breaking News

ঘাস পরিচিতি : সরগম (সুদানগ্রাস হাইব্রিড) ( সুইট জাম্বো ) ,চাষ পদ্ধতি ও ফলন বিস্তারিত

ঘাস পরিচিতি : : সরগম -( সুদানগ্রাস হাইব্রিড) ( সুইট জাম্বো )

পরিচিতি : আফ্রিকার গরম আবহাওয়ার উপযোগী শস্য জোয়ার এবং বাজরার ক্রস এর মাধ্যমে যে উষ্ণ আবহাওয়া উপযোগী নতুন জাতের ঘাস এর উদ্ভাবন করা হয়েছে সেটাই আমাদের আলোচিত ঘাস। সরগম সাধারণত ২ প্রকার হয়ে থাকে। একটা হলো শস্য হিসাবে যেটার চাষ করা হয় এবং এইগুলো ৩-৪ ফুট বড় হয়ে থাকে। অন্যদিকে ঘাস এর জন্য চাষ করা সরগম ৮-১২ ফুট পর্যন্ত লম্বা হয়ে থাকে এবং ড্রাই ম্যাটার ও বেশি থাকে এবং সুগার এর পরিমান বেশি থাকে। আবার সুদান গ্রাস ৪-৭ ফুট লম্বা হয়ে থাকে এবং পুষ্টিগুন্ ও তুলনামূলক বেশি কিন্তু ঘাসের জন্য চাষ করা সরগম এর চেয়ে ছোট হয়ে থাকে। তাই উভয় প্রকার শস্যের সকল গুন্ একত্রিত করে ক্রস এর মাধ্যমে নতুন উদ্ভাবন করা ঘাসই হলো আমাদের পরিচিত সুইট জাম্বো বা সরগম সুদানগ্রাস হাইব্রিড।

বৈশিষ্ট্য : আফ্রিকার গরম আবহাওয়ার শস্য জোয়ার এবং বাজরা থেকে ক্রস করে উদ্ভাবন বিধায় এই ঘাস গরম আবহাওয়াতে চাষের জন্য খুবই উপযোগী। শীতকালে এই ঘাসের বৃদ্ধি খুবই কম বিধায় এই ঘাস চাষের উপযুক্ত সময় গরমকাল। প্রায় নেপিয়ার এর সমান পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ সুইট জাম্বো দেখতে ও অনেকটা নেপিয়ার এর মতো। তবে চাষের পদ্দতি কিছুটা ভিন্ন। অধিক ড্রাই ম্যাটার ও পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ এই ঘাসের খুব রোগ প্রতিরোধী এবং খুব সহজে চাষ করা যায়।

চাষ পদ্ধতি :

১) জমি নির্বাচন : সুইট জাম্বো তুলনামূলক দোআঁশ বা বেলে দোআঁশ মাটিতে যেখানে পি এইচ ৫.৫-৭.৭ এর মধ্যে সেখানে খুব ভালো জন্মে। সুইট জাম্বোর জমিতে পানি আটকে থাকতে পারবে না। যেহেতু শুষ্ক জমিতে চাষের ঘাস তাই পানি এই ঘাসের জন্য দরকার নাই বললেই চলে। সুইট জাম্বো চাষ করার জমিতে ভালো পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা থাকতে হবে।

২) জমি প্রস্তুতকরণ : এই ঘাসের বীজ বপনের আগে জমি ভালো করে চাষ করে মাটির বড় দলা সুন্দর করে ছোট করে দিতে হবে। জমিতে কয়বার চাষ দিতে হবে এটা নির্ভর করবে জমির মাটির আদ্রতা এবং কি মাটিতে চাষ করা হচ্ছে তার উপর।

৩) বীজ বপন : জমি ভালো করে প্রস্তুত করে প্রতি হেক্টর (২.৪৭ একর) জমির জন্য গড়ে ১৫ কেজি বীজ মাটির ২ থেকে ৩.৫ সেনটিমিটার নিচে বপন করে জমি উত্তম রূপে মই দিতে হবে যেন বীজ মাটির উপরে দেখা না যায়।

৪) উর্বরতা : সুইট জাম্বো ঘাস এর অধিক ফলন এর জন্য জমিতে নাইট্রোজেন সার (ইউরিয়া) ব্যবহার করা যেতে পারে। প্রথমবার ঘাস কিছুটা বোরো হবার পর ১০০কেজি নাইট্রোজেন সার প্রতি হেক্টর জমিতে (২.৪৭ একর) প্রয়োগ করে সামান্য সেচ দিলে উত্তম ফলন পাওয়া যাবে। এরপর প্রতিবার ঘাস কাটার পর ৫০কেজি / প্রতি হেক্টর এ প্রয়োগ করে সেচ দিতে হবে।

৫) ঘাস সংগ্রহ : সাধারণত সুইট জাম্বো ঘাস চাষ করার ৬০ দিনের মধ্যে কাটার উপযোগী হয়ে ওঠে। ঘাসের উচ্চতা ৩০ ইঞ্চি বা তার বেশি হলে প্রথমবার কাটা যায়। প্রথমবার কাটার সময় ঘাসের গোড়া থেকে ৪-৬ ইঞ্চি রেখে কাটতে হবে যেন এরপরে আবার দ্রুত ঘাস বেড়ে উঠে। প্রথমবার কাটার সাধারণত ৩০-৩৫ দিনের মধ্যে আবার কাটার উপযোগী হয়ে ওঠে। এভাবে একবার চাষ করা ঘাস ৩/৪ বার ফলনের ঘাটতি ছাড়া কাটা যায়।

পুষ্টিগুণ : সুইট জাম্বো ঘাসে ক্রুড প্রোটিন এর পরিমান ১৫-১৬% (প্রথম অবস্থায়, ৬০ দিনের মধ্যে) এবং ঘাস যত বেশি বয়স্ক এবং ফলনশীল এবং পূর্ণ বয়স্ক হতে থাকবে তত ক্রুড প্রোটিন এর পরিমান কমতে থাকবে। এই ঘাসে ড্রাই ম্যাটার ২০-২৫ % এবং অ্যাসিড ডিটারজেন্ট ফাইবার ৩০-৪০ % এবং নিউট্রাল ডিটারজেন্ট ফাইবার ৫৫-৬৫ %, ল্যাকটেশন এনার্জি ১.৩-১.৬ এমক্যাল/কেজি, মেইনটেনেন্স এনার্জি ১.১৫-১.৬ এমক্যাল/কেজি এবং টোটাল ডাইজেস্টিভ নিউট্রিয়েন্টস ৫৫-৭০% ।

সতর্কতা : সরগম সুদানগ্রাস হাইব্রিড বা সুইট জাম্বো ঘাসে সায়ানোজেনিক গ্লুকোসিড নামের বিষাক্ত এজেন্ট থাকে। তাই এই জাতের ঘাস খাওয়ানোর আগে কিছুক্ষন রোদে রেখে খাওয়ালে বিষক্রিয়ার সম্ভাবনা অনেক কমে যায়। তবে সাইলেজ করে বা শুকায়ে খাওয়ালে বিষক্রিয়ার সম্ভাবনা থাকেনা। এছাড়া বর্ষাকালে প্রথম বৃষ্টির পরে, জমিতে সার প্রয়োগের পরে অথবা বিদ্যুৎ চমকানোর পরে যেকোনো কাঁচা ঘাসই গরুকে খাওয়ানো বিপদ জনক।

লেখক ঃ জাহিদুল ইসলাম

রেফারেন্স :
http://www.sare.org/…/Nonlegume-Cover-Cr…/Sorghum-Sudangrass
http://articles.extension.org/…/sorghum-sudangrass-hybrids-…
http://covercrops.cals.cornell.edu/pdf/sudangrass.pdf
http://www.omafra.gov.on.ca/english/crops/facts/98-043.htm

Please follow and like us:

About admin

Check Also

গরুর খাদ্য হিসাবে কলাগাছ : গুরুত্ব পর্যালোচনা

গরুর খাদ্য হিসাবে কলাগাছ : গুরুত্ব পর্যালোচনা আমাদের দেশে গরুর আপদকালীন খাবার হিসাবে পরিচিত কলাগাছ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »
error: Content is protected !!