রোগ নির্ণয় এবং চিকিৎসা(ব্রিডার)

কিছু না বুঝা গেলে ৯ বা ৫ আছে না,যত দোষ নন্দ ঘোশ।

আমরা এখন ও গুটি কয়েক রোগ নিয়ে পড়ে আছি। পোল্ট্রি সেক্টরের শুরু ১৯৯০ সালের দিকে,অল্প কোম্পানী, অল্প ফার্ম , অল্প খামারী – ডিলার,অল্প রোগ। এর পর থেকে পোল্ট্রিতে এসেছে অনেক চড়াই উত্রাই,বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রোগ ব্যাধি এসে ধবংস করে দিয়ে গেছে অনেক খামারী। আবার গুড়ে দাড়িয়েছে আবার ধস নেমেছে আবার ...

Read More »

ইয়কসেক ইনফেকশন(নাভিকাচা/অম্ফালাইটিস)

নাভিকাচা

ইয়কসেক ইনফেকশন(নাভিকাচা/অম্ফালাইটিস) সি আর ডি ও আই বি ডির অন্যতম মূল কারণ হলো ইয়ক সেক ইনফেশন। কারণঃ হ্যাচারীঃ পুরাতন হ্যাচারীঃপুরাতন হ্যাচারীতে জীবাণুর লোড বেশি থাকে। হ্যাচারীর হ্যাচার ও ইনকিউবেটর যদি পরিস্কার না করা হয়। অনেক সময় ধরে বাচ্চা যদি হ্যাচারীতে থাকে(বিক্রি করতে না পারলে) ছোট ডিমের বাচ্চা হলে(২৪-২৭ সপ্তাহের ডিমের ...

Read More »

লেয়ার,ব্রয়লার,সোনালী,হাঁস,কোয়েল,কবুতর,টার্কির কি কি রোগ হয়(স্পিসিস অনুযায়ী ডিজিজ)

রোগ

লেয়ার,ব্রয়লার,সোনালী,হাঁস,কোয়েল,কবুতর,টার্কির কি কি রোগ হয়(স্পিসিস অনুযায়ী ডিজিজ) ক।লেয়ারের  গুরুত্বপূর্ণ রোগ : ১।ভাইরাল ক)মারেক’স খ)রাণীক্ষেত গ)গাম্বোরু ঘ)ভাইরাল আর্থাইটিস ঙ)এগ ড্রপ সিনড্রম চ)ইনফেকশাস ব্রংকাইটিস( আই বি) ছ) পক্স জ)লিম্ফয়েড লিউকোসিস/এভিয়ান লিউকোসিস ঝ) আই বি এইচ ঞ)ইনফেকশাস লেরিংগোট্রাকিআইটিস( এই এল টি) ট)এভিয়ান এনসেফালোমাইয়েলাইটিস ঠ)ইনফেকশাস চিকেন এনিমিয়া ড)এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা(৯,৫) ২।ব্যাকটেরিয়াল ক)অমফ্যালাইটিস খ)সালমোনেলোসিস গ)ইনফেকশাস কোরাইজা ...

Read More »

পোল্ট্রি ব্রিডারস ফার্টিলিটি ডিজঅর্ডার

প্রধান কারণ মেল ফিমেলের রেটিও এবং মেলের ওজন ৪টি ভাগে ভাগ করা হয়েছে আর্লি পিক মিড লেট early, peak, mid-lay, and late period. I. EARLY EGG LAY HATCHES (26-28 WEEKS) এই সময় ৪-৫% এক্টিভ  মেল থাকতে হবে ধকলের কারণে অনেক মেল ই অ ক্ষম হয়ে যায়। মেলের ইউনিফর্মিটি যদি ভাল ...

Read More »

রোগ নির্ণয় করতে কতগুলো প্রশ্নের উত্তর জানতে হয়।

রোগ নির্ণয় করতে কতগুলো প্রশ্নের উত্তর জানতে হয়। মুরগিতে রোগ আছে প্রায় ৪০টি। হিস্ট্রি নিলে রোগের সংখ্যা কমে যায় এতে ডায়াগ্নোসিস অনেক সহজ হয়.৪০টি রোগ থেকে ১টা রোগ বের করা কঠিন কিন্তু ৫টা বা ৩টা থেকে ১টা বের করা অনেক সহজ কারণ বয়স,সংখ্যা,অসুস্থতা,মৃত্যহার অনুযায়ী রোগ বিভিন্ন হয়। কিছু রোগ আছে ...

Read More »

এভিয়ান নেফ্রাইটিস ভাইরাস/এন্টারোভাইরাস

এভিয়ান নেফ্রাইটিস

 এপিডিমিওলোজি ঃ এটি সারা পৃথিবীতে দেখা যায়। ভাইরাল রোগ যা চিকেনে দেখা যায় বিশেষ করে ব্রয়লারে। বেশির ভাগ সাবক্লিনিকেল রুপে দেখা যায়। ৭দিনের কম বয়সে হয় তবে ইন্টার্টিশিয়াল নেফ্রাইটিস হলে ৪ সপ্তাহ পর্যন্ত হয়। মর্টালিটি ০-১০%। ব্রয়লারের ওজন কম হয়। এভিয়ান নেফ্রাইটিস ভাইরাস(ANV) আগে এটিকে এন্টারোলাইক ভাইরাস(ELV) বলা হত। চিকেন এস্টুভাইরাস(CAstV) ...

Read More »

কনজাঙ্কটিভাইটিস (পিংক আই/ড্রাই আই)

কঞ্জাংটিভাইটিস

কনজাঙ্কটিভাইটিস (পিংক আই,ড্রাই আই) কনজাঙ্কটিভাতে প্রদাহ হলে তাকে কনজাঙ্কটিভাইটিস বলে।এটি এক চোখ বা উভয় চোখে হতে পারে। কারণ: ১. ইনফেকশন – ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস, ফাঙ্গাস ২. প্যারাসাইট – আইওয়ার্ম (Oxyspirura mansoni, Thelazia spp. and Ceratospira spp.) প্লাজমোডিয়াম স্পিসিস,মাইক্রোসপোরিডিওসিস, ক্রিপ্টোসপোরিডিওসিস অথবা ট্রাইকোমোনিয়াসিস। ৩. ফরেন বডি: বালি,ধূলা,পালকের অংশ ইত্যাদি। ৪. ফিজিক্যাল ইরিট্যান্টস: ধোঁয়া,রাসায়নিক ধোঁয়া ...

Read More »

মুরগির সি আর ডি,সি সি আর ডি,আর ডি সি কি ?কেন হয়ঃবিস্তারিত

ক্রনিক রেস্পিরেটরী ডিজিজ

সি আর ডি ( ক্রনিক রেস্পিরেটরী ডিজিজ”)এটি একক ভাইরাস বা ব্যাক্টিরিয়ার কারণে হয় না,উভয়ের যৌথ আক্রমণের কারণে হয়। মাইকোপ্লাজমাল ইনফেকশন এর সাথে যদি  ফিল্ড ভাইরাস,ভ্যাক্সিন,ইমোনোসাপ্রেসিভ এজেন্ট এবং দূর্বল ব্যবস্থাপনা ইন্টারএক(interact) হয় তাহলে (সি আর ডি) ক্রনিক রেস্পিরেটরী ডিজিজ তৈরি করে। তবে নির্দিস্ট করে বলতে গেলে মাইকোপ্লাজমা ক্লিনিকেলি হলে আসলে তাকে ...

Read More »

এগ বাউন্ড কন্ডিশন,সোলেন হেড সিনড্রম,ডিহাইড্রেশন

হাড় পচা

এগ বাউন্ড কন্ডিশনঃ এটি গীষ্মকালে ও বসন্তকালে বেশি দেখা যায় কারণঃ ডিম্বাশয়ে প্রদাহ অভিডাক্টে(ডিম্বনালী) আংশিক প্যারালাইসিস বড় ডিম মুরগি ১ম দিকে  কিছু বড় ডিম দেয় যা আটকে যায়। লাইটিং সিডিউলে ভুল হলে বিশেষ করে আলোর তীব্রতা বেশি হলে। ওজন কম বা বেশি ফ্যাটি লিভার সিন্ড্রম পুলেট ব্যবস্থপনা যদি ভাল না ...

Read More »

কৃমি এবং কৃমিনাশকঃবিস্তারিত

  ।ক।ফিতাকৃমি খ।গোল কৃমি পোল্ট্রিতে প্রধানত ২ ধরণের কৃমি বেশি হয়। গোল এবং ফিতা কৃমি মুরগিতে প্রধানত রাউন্ড ওয়াম (২-৩ ইঞ্চি)হয় তবে,সুতাকৃমি(১-১.৫সে মি),সিকালকৃমি,ফিতাকৃমি(৪-৫ ইঞ্চি) হতে পারে।তবে আমি ফিতাকৃমি ১ফুট লম্বা পর্যন্ত পেয়েছি। সিকাল কৃমি ও ফিতাকৃমি গোল কৃমির চেয়ে কম ক্ষতিকর নয়। এস্কারিডিয়া গ্যালি নামক রাউন্ড ওয়াম দ্বারা বেশি আক্তান্ত  ...

Read More »

স্টেফাইলোকক্কোসিস,ফিমোরাল হেড নেক্রোসিস,জি ডি।

এটি স্টেফাইলোকক্কাস অরিয়াস নামক ব্যাক্টেরিয়া দিয়ে হয়। এটি পোল্ট্রিতে কমন এবং বিভিন্ন রোগ তৈরি করে।নরমালি স্কিনে থাকে। হোস্টঃ ব্রয়লার এবং টার্কিতে বেশি হয়। যেমন ইয়ক সেক ইনফেকশন,গ্রেংগ্রিনাস ডার্মাটাইটিস,বাম্বল ফুট ও স্টেফাইলোকক্কাল সেপ্টিসেমিয়া। এটি কয়েক টক্সিন ও এঞ্জাইম তৈরি করে যা রোগকে তীব্র করে তুলে। কিভাবে ছড়ায়ঃ চামড়ায় বা মিউকাস মেমব্রেনে ...

Read More »

গ্রেংগ্রিনাস ডার্মাটাইটিস (Gangrenous Dermatitis: GD)

একে বিভিন্ন নামে ডাকা হয় যেমন উইন রট,এভিয়ান ম্যালিগন্যান্ট ইডিমা,নেক্রোটিক ডার্মাটাইটিস,গ্যাস ইডিমা,গ্রেংগ্রিনাস সেলোলাইটিস/ডার্মাটোমাইকোসিস। It is characterized by areas of death and putrefaction in skin underlying tissue(muscle) এটা প্রধানত  ব্রয়লারে হয় এবং কমন রোগ তবে লেয়ারেও হয়। ব্রয়লারে ৪-৬ সপ্তাহ এবং লেয়ারে ৬-২০ সপ্তাহে হয়। মরটালিটি ১-৬০%। গরম ও  আর্দ্র পরিবেশে ...

Read More »

এডিনো ও রিওভাইরাস গ্রুপঃরিও ব্রয়লারের রোগ কিন্তু ভ্যাক্সিন দিচ্ছে কমার্শিয়াল লেয়ারকে( অদ্ভুত)

এডিনো ও রিওভাইরাস গ্রুপঃরিও ব্রয়লারের রোগ কিন্তু ভ্যাক্সিন দিচ্ছে কমার্শিয়াল লেয়ারকে রিও ব্রয়লারের রোগ কিন্তু ভ্যাক্সিন দিচ্ছে কমার্শিয়াল লেয়ারকে( অদ্ভুত) এই ২টি গ্রোপ দ্বারা অনেক গুলো মারাত্মক রোগ পোল্ট্রিতে হয় যা খামারীর লসের কারন হয়ে দাঁড়ায়। এডিনোভাইরাস লেয়ার ও ব্রয়লারে আর রিওভাইরাস মূলত ব্রয়লারে রোগ সৃষ্টি করে।  ক।এডিনো ভাইরাস ঃ এটি ...

Read More »

ব্রয়লারের রান্টিং স্টান্টিং সিনড্রম,কেন হয়,কারণ,লক্ষণ,পোস্টমর্টেম,প্রতিরোধ

মুরগির বাচ্চা বড় হয়না,ওজন বাড়েনা,একে বামন বিকার বলা হয়। এটি ব্রয়লারে হয় তবে মেল ব্রয়লারে বেশি হয়। এতি হটাত করে হয় এবং হঠাত ভাল হয়ে যায়। গাট ইমোনিটি খারাপ হলে বেশি হয়। ১৯৪০ সালে প্রথম দেখা যায়। একে ভাইরাল এন্টারাইটিস,ম্যালএবজোরশন সিন্ড্রম( malabsorption syndrome),ব্রিট্রল বোন ডিজিজ,ইনফেকশাস প্রভেন্টিকোলাইটিস,হেলিকপ্টার ডিজিজ,helicopter diseases),RSS(Runting and stunting ...

Read More »

চিকেন ইনফেকশাস এনিমিয়া,এপিডিমিওলোজি,লক্ষণ,প্যাথোজেনেসিস,পোস্টমর্টেম,প্রতিরোধ।

ইনফেকশাস এনিমিয়া

এপিডিমিওলোজিঃ একে বিভিন্ন নামে ডাকা হয় এবং সারা পৃথিবীতে দেখা যায়। ব্লু উয়িং ডিজিজ,এনিমিয়া ডার্মাটাইটিস সিনড্রম,হেমোরেজিক এপ্লাস্টিক এনিমিয়া সিনড্রম । ১৯৭৯ সালে জাপানে প্রথম আইসোলেট করা হয়। এজেন্টঃ ফ্যামিলি সারকোভিরিডি,জেনাস গ্রাইরোভাইরাস। এটি পরিবেশের প্রতি খুব রেজিস্ট্যান্ট যা পি এইচ ৩ এবং ক্লোরোফর্মে বেঁচে থাকে।৭০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেট তাপমাত্রায় ১ঘন্টা বেচে থাকে ও ...

Read More »

ফ্যাটি লিভার সিনড্রম কেন হয়,কারণ,লক্ষণ,পোস্টমর্টেম,চিকিৎসা,প্রতিরোধ।

ফ্যাটি লিভার সিনড্রম কেন হয়,কারণ,লক্ষণ,পোস্টমর্টেম,চিকিৎসা,প্রতিরোধ। মুরগি মাঝে মাঝে  মারা যায়,বিভিন্ন মেডিসিন খাওয়ানো হয়েছে কাজ হয় না আমাদের একটা কমন বিষয় হলো মুরগি দেখে এন্টিবায়োটিক না দিলে খামারী খুশি হয় না,কিন্তু এই ক্ষেত্রে এন্টিবায়োটিক দেয়া যাবে না। এটা ফ্যাটি লিভার হতে পারে বিস্তারিত নিচে আলোচনা করা হলো হোস্টঃ ডিম পাড়ার শুরুতে ...

Read More »

এভিয়ান এনসেফালোমাইলাইটিসঃবিস্তারিত।

এভিয়ান এন্সেফালোমাইলাইটিস

এভিয়ান এনসেফালোমাইলাইটিসঃবিস্তারিত। এই রোগটি আমাদের দেশে হচ্ছে কিন্তু ডায়াগ্নোসিস হচ্ছে না তাই অন্যান্য রোগের মত তত আলোচিত না। এপিডিমিওলোজিঃ এজেন্টঃ এভিয়ান এনসেফালোমাইলাইটিস ভাইরাস দিয়ে হয়।এটা এন্টারোভাইরাস ভাইরাস নামে পরিচিত। Viral Diseases of chicks characterized by muscular incoordination and rapid tremors especialy head and neck. একে এপিডার্মিক ট্রিমোর ও স্টার গেজিং ...

Read More »

ইনফেকশাস ল্যারিংগো্ট্রাকিয়াইটিস

এজেন্ট ১৯২৫ সালে মে ও টিটস্লার  এটি আবিস্কার করেন কিন্তু নাম করণ করেন বিস ও গ্রাহাম ১৯৩০ সালে। এটি হারপিস ভাইরাস জনিত রোগ।এটি এনভেলভ ডি এন এ ভাইরাস। এটি ফার্মে প্রবেশ করলে আর দূর করা যায় না। একে এভিয়ান ডিপথেরিয়া নামে ডাকা হয়। এর ১ টি মাত্র সেরোটাইপ। এর ডায়ামিটার ...

Read More »

ব্রয়লারের সাডেন ডেথ সিনড্রম

ব্রয়লারের সাডেন ডেথ সিনড্রম এটি পৃথিবির বিভিন্ন দেশে দীর্ঘ দিন ধরে ব্রয়লার পালনে মারাত্মক সমস্যা এবং অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতির কারণ হয়ে দাড়িয়েছে। আমাদের দেশে তা ব্যাপক হারে দেখা যায়। জাত নির্বাচন,পরিবেশ ও খাদ্যের পুস্টিমানের তারতম্যের ফলে সৃস্ট বিপাক ক্রিয়ার গোলযোগের কারণে ব্রয়লারে এ রোগটি দেখা যায়,যদিও সঠিক কারণ জানা যায়নি।Imbalance of ...

Read More »

ব্রুডার নিউমোনিয়া এবং ক্যান্ডিডিয়াসিস(Sour crop) হয়,কিভাবে হয়,লক্ষণ,পোস্টমর্টেম,চিকিৎসা,প্রতিরোধ

ফুসফুস

এপিডিমিওলোজি ছত্রাক হচ্ছে এককোষী বা বহুকোষী থ্যালোফাইটিক ( সমাংগদেহী) উদ্ভিদ যার মূল,কান্ড পাতা বা ক্লোরোফিল নামক বর্ণ কনিকা নাই।এরা পরজীবী বা পরভোজী জীবাণূ হিসেবে অন্য প্রাণীদেহে বসবাস করে।এদের বৃদ্ধির জন্য প্রয়োজনীয় তাপমাত্রা ২০-৩০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেট। মুরগিতে মূলত এস্পারজিলোসিস ও ক্যান্ডিডিয়াসিস হয়। একে মাইকোটিক নিউমোনিয়া ও বলা হয়। একে এস্পারজিলোসিস বলা ...

Read More »
Translate »
error: Content is protected !!