Breaking News

Heat of a Cat (বিড়ালের হিট)

Heat of a Cat (বিড়ালের হিট)🐈🐈🐈
——————-++++++++++++++++——————

জ্বী হ্যা, বিড়ালরাও হিট এ আসে। তবে পদ্ধতিটি একটু ভিন্ন। আসলে মানুষের ক্ষেত্রে যেটা হয় সেটাকে পিরিয়ড বলা হয়। বাট বিড়ালের ক্ষেত্রে মানুষের মত পিরিয়ড হয় না। সেজন্য বিড়ালের ক্ষেত্রে এটাকে “Heat” বা “Call” অথবা বাংলায় “ডাক” বলা হয়ে থাকে।

বিড়ালের হিট বলতে মূলত বুঝায় যে, একটি Un-Spayed (স্পে করা হয়নি এমন ফিমেল বিড়াল) বিড়ালের এমন অবস্থা যে সে মিলনের (Sex) জন্য প্রস্তুত।

বিড়ালের হিট সাইকেল ২১-২৮ দিনের হয়ে থাকে এবং এই ২১-২৮ দিনের মাঝে ২/৩ দিন থেকে কখনো ৫ দিন বা ১ সপ্তাহ পর্যন্ত বিড়ালের মাঝে কিছু অস্বাভাবিকতা বা Excitements দেখা যায়। মূলত হিট বলতে আমরা এই মাঝের ২-৭ দিন (অস্বাভাবিক অবস্থা) কেই বুঝি।

কিভাবে বুঝবেন যে আপনার বিড়াল হিট এ এসেছে

অনেক সময় দেখা যায় যে, বিড়াল অসুস্থ হয়েছে বাট আমরা মনে করি সে হিট এ এসেছে। তাই অবহেলা করি। ফলে অবস্থা খারাপ হয়ে যায়। তাই প্রথমেই পার্থক্য করতে হবে এবং বুঝতে হবে যে, বিড়ালটি হিট এ এসেছে নাকি সে অসুস্থ?

—- বিড়াল হিট এ আসলে সবচেয়ে কমন যেই লক্ষণ গুলি লক্ষণীয় তা হলো,
অস্বাভাবিক উচ্চস্বরে ডাকা, মাটিতে বা মানুষকে বা অন্য যেকোন কিছুতে আঁচড়ানো, বাহিরে ছুটে চলে যাবার প্রবণতা, মেঝেতে গড়াগড়ি দেওয়া, সর্বক্ষণ অস্থিরতা, খাবার গ্রহণ এ অনিহা, গায়ের সাথে বা সকল বস্তুর সাথে লেজ ঘষে ঘষে হাঁটা ও আরো একটি বিশেষ লক্ষণ হচ্ছে, তার পিঠে বা লেজের দিকে ধরলে বা স্ক্র্যাচ করলে সে লেজ উঁচু করে মাথা কিছুটা নিচু করে ভেজাইনা / জরায়ু উপরের দিকে এগিয়ে দিবে।

——- কিন্তু যদি কখনো এমন দেখা যায় যে, বিড়ালটি শুধু অস্থির হয়ে আছে কিন্তু লেজ নাড়া বা শরীরে ঘষাঘষি করা এসব কোন লক্ষণ প্রকাশ পাচ্ছেনা, তাহলে বুঝতে হবে যে সে নিশ্চয়ই কোন পেইন এর ভেতর দিয়ে যাচ্ছে। এরকম অবস্থায় অবশ্যই দ্রুত তাকে ভেট এর কাছে নিতে হবে।

হিট কন্ট্রোলে আনার প্রকৃয়াঃ

—– প্রধানত দুটি পদ্ধতি রয়েছে, তারমধ্যে সবচেয়ে বেস্ট পদ্ধতি হচ্ছে বিড়ালকে #স্পে (সার্জারি করে ওভারি কেটে ফেলা) করা। তবে অনেকের ক্ষেত্রেই অনেক অসুবিধার কারণে সেটা সবসময় সম্ভব হয়ে উঠেনা।

এখন সার্জারি না করে কিভাবে হিট কন্ট্রোল করা যায় সেই বিষয়টি বলব।

#পদ্ধতি ০১ঃ

১) প্রথমেই তাকে সকল পুরুষ বিড়াল থেকে আলাদা করে ফেলতে হবে। বাসায় নিউটার না করানো পুরুষ বিড়াল থাকলে তাকে কিছু দিনের জন্য অন্য কোথাও এডপ্ট করে দিন। হিট চলে গেলে আবার নিয়ে আসবেন। সকল জানালা ও দরজা বন্ধ রাখতে হবে। এই সময় ই বিড়াল সবচেয়ে বেশি বাহিরে চলে যেতে চায় তাই বেশি খেয়াল রাখতে হবে। জানালা দিয়ে বাহিরের বিড়াল দেখা গেলে জানালাতে কার্ড বোর্ড দিয়ে দিতে হবে।

২) বিড়ালকে কোন গরম প্লেসে বসতে দিন। অথবা তাকে হালকা গরম সেঁক দিন। কাপড় স্ত্রী করার মেশিন দিয়ে তোয়ালে গরম করে সেটা দিয়ে সেঁক দিতে পারেন। এতে সে আরাম পাবে। মাঝে মধ্যে তোয়ালে দিয়ে তার ভেজাইনাতে হালকা সেঁক দিন।

৩) লিটার বক্স এই সময়টাতে অনেক বেশি ক্লিন রাখতে হবে। এসময় বিড়াল অনেক বেশি বেশি প্রশ্রাব করে। তাই লিটার শুকনো রাখার ও ব্যবস্থা করতে হবে।

৪) আপনার বিড়ালের সঙ্গে সর্বোচ্চ সময় দিতে হবে। তার দাথে খেলতে হবে। তার মন খেলার দিকে ঘুরাতে হবে। এতে হিট আস্তে আস্তে কমে যাবে।

#পদ্ধতি ০২ঃ

এই পদ্ধতিটি হচ্ছে বিড়ালকে পার্মানেন্ট ভাবে স্পে করে ফেলা। এটা তাকে আজীবনের জন্য হিট থেকে মুক্তি দিবে এবং চিরকালের জন্য বন্ধ্যা করে দিবে। ফলে সে আর কখনো বাচ্চা দিতে পারবে না।

১) স্পে করানোঃ
এটি একটু আগেই বলা হয়েছে। এটাই সবচেয়ে সহজ উপায় বিড়ালকে আজীবনের জন্য হিট থেকে মুক্তি দেবার।

২) সবসময় মনে রাখবেন যে, বিড়ালের স্পে তখনি করাবেন যখন তার হিট চলে যাবে। সে যখন সম্পূর্ণ নরমাল থাকবে। হিট থাকা অবস্থায় ও স্পে করানো যায়। তবে সেটা কিছুটা রিস্কি। এসময় আর্টারি তে ব্লাড প্রেশার অনেক বেশি থাকে।তখন স্পে করানোটা পরিহার করাটাই বেটার। কারণ আনওয়ান্টেড ব্লিডিং হয়ে থাকে।

৩) স্পে না করিয়েও বিভিন্ন হরমোনাল থেরাপির মাধ্যমেও বিড়ালের হিটে আসা বন্ধ করা যায় ও তাকে বন্ধ্যা করে রাখা যায়। কিন্তু এটার অনেক সাইড ইফেক্ট আছে। তাই এই পদ্ধতি অনুসরণ না করাই সবচেয়ে ভাল।

#কিছু_গুরুত্বপূর্ন_প্রশ্ন

১) হিটে আসলে কি বিড়ালের খুব যন্ত্রণা হয়?

— মোটেই না। বিড়ালের হিট মানুষের মত না। এটা তার জন্যে একটি নরমাল বিষয় তবে যে অস্বাভাবিকতা দেখা যায় সেটা সে মূলত পুরুষ বিড়ালকে আকৃষ্ট করার জন্যই করে থাকে।

২) বিড়ালের হিট কতদিন থাকে?

—– এটা আসলে ক্যাট টু ক্যাট ভ্যারি করে। সঠিকভাবে বলা যায় না কখন তার “ডাক” উঠবে। তবে যখন “ডাক” উঠবে তা ২-৭ দিন পর্যন্ত স্থায়ী থাকতে পারে এবং যদি সে কোন পুরুষ বিড়ালের সাথে মেটিং করার সুযোগ না পায় তাহলে দুই সপ্তাহের মাঝে আবার পুনরায় হিটে আসবে। তবে টোটাল হিট সাইকেল টি ২১-২৮ দিন অবধি চলে।

৩) কত বয়েষে বিড়াল প্রথম হিটে আসে?

—- সাড়ে ৫ মাস থেকে ৬ মাসের মধ্যে। তবে ভাল নিউট্রিশন সমৃদ্ধ ডায়েট পেলে ৫ মাসেও বিড়াল হিটে আসতে পারে।

৪) বিড়ালকে কতদিনের জন্য অন্য বিড়াল থেকে আলাদা রাখতে হবে?

—- ৩ থেকে ৭ দিন (তার হিটের অস্বাভাবিকতা যতদিন থাকে)

৫) হিটে থাকা অবস্থায় কি বিড়ালকে স্পে করানো যায়?

—- হ্যা, হিটে থাকা অবস্থায় ও বিড়ালকে স্পে করানো যায়। তবে কুকুর দের হিটে থাকা অবস্থায় স্পে করাতে হয় না।

#সতর্কতাঃ
কখনো কখনো দেখা যায় বিড়ালের ভেজাইনা দিয়ে আঠালো রস পড়ছে বা রক্তক্ষরণ হচ্ছে! এরকম দেখলে আমরা তা পিরিয়ড মনে করি মানুষের মত এবং এটাই সবচেয়ে বড় ভুল করে থাকি।
মনে রাখবেন, বিড়াল কুকুরের হিট এ আদলে কখনো এরকম সমস্যা দেখা যায়না। এরকম হলে বুঝে নিতে হবে যে তার নিশ্চয়ই ইন্টার্নাল কোন সমস্যা হয়েছে এবং দেরি না করে সে বিষয়ে খুঁতিয়ে দেখতে হবে।

Nur Ahmed
L-04, S-II
DVM 13th Batch
HSTU, Dinajpur

Please follow and like us:

About admin

Check Also

বিড়াল পর্ব ঃ

বিড়াল পর্ব ঃ১ আজকে আলোচনা করবো ইন্টারেস্টিং একটা বিষয় নিয়ে,,, বিড়াল কবে থেকে পোষ মানে?? …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »
error: Content is protected !!