Breaking News

মুরগির গাউট নিয়ে বিস্তারিত

মুরগির গাউট নিয়ে বিস্তারিত

ব্রয়লারে বেশি এবং দ্রুত লাভবান হওয়ার জন্য হাই সিলেকশন প্রেশারের ফলে গাউট,এসাইটিস,সাডেন ডেথ সিন্ড্রম এই রোগ গুলি হচ্ছে।

ইতিমধ্যে পোল্ট্রিতে কয়েকবার জেনেটিক মডিফিকেশন করা হয়েছে যার কারণে ব্রয়লার নিউট্রিশন,ব্যবস্থাপনা ও স্বাস্থ্য এর প্রতি খুব বেশি সেনসিটিভ মানে এগুলোর সামান্য পরিবর্তন বা ঘাটতি হলে সমস্যা দেখা দেয়। ফলে ভাল রিজাল্ট পাওয়া যায়না বরং রোগ ব্যাধি বেশি হয়।

তাছাড়া ইউরোলিথিয়াসিস এর (পাথর যদি ইউরেটারে জমা হয়) কারণে পুলেট এবং খাচা পালনকারী মুরগিতে ও গাউট হয়।

গাউট লেয়ারে হলে প্রতি সপ্তাহে ১% মারা যেতে পারে এবং তা বিক্রির আগ পর্যন্ত চলতে পারে।তবে এমন কম  হয়।

১-৩ সপ্তাহের দিকে বেশি হয়।

মুরগির ইউরিনে ৮০% ইউরিক এসিড থাকে যা নাইট্রোজেন পরিপাকের ফলে হয়।

The end product of nitrogen metabolism in chicken is uric acid,which constitutes about 80% of urinary nitrogen.

Uric acid is normaly excreted in urine by active tubular secretion.

Dysfunction of renal tubules results in decreased secretion of calcium and sodium salts of uric acid.

Excessive damage of nephrons inhibits elimination of uric acid,resulting in hyper uricemia. which in turn leads to deposition of urate crystals on serous surface of various visceral organs like heart,liver,lungs.proventriculus,gizzard,intestine,peritonium.

গাউট :

গাউট হল মেটাবলিক রোগ অতিরিক্ত ইউরিক এসিড কিডনি বডি থেকে বের করতে না পারলে শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ  কিডনি,লিভার,হাট,প্রভেনটিকোলাস,পেরিটোনিয়াম,ক্ষুদ্রান্ত্রে এবং ফুসফুসে ইউরিক আসিড জমা হলে তাকে গাউট বলে। ।

One of the important metabolic disorders associated with kidneys damage in poultry is gout.
এসব অঙ্গের  মধ্যে কিডনির কাজ হল:
# বডির কেমিকেল কমপজিশন ঠিক রাখা।
#মেটাবলিক বাইপ্রডাক্ট এবং টক্সিক প্রডাক্ট দূর করা,
#ব্লাড প্রেসার,রক্তের পরিমান,ইলেকটোলাইট এবং তরল ঠিক রাখা.

স্বাভাবিক ইউরিক এসিড ৪৪এম জি প্রতি ১০০ এম এল এ কিন্তু অস্বাভাবিক হলে ৫৭এমজি হয়.

লিভার( পিউরিন এবং প্রোটিন) মেটাবলিজম (পরিপাক)করে ইউরিক এসিড তৈরি করে,মুরগি বেশি প্রোটিন খেলে লিভারে বেশি ইউরিক এসিড তৈরি হয়.

কিডনিতে কোন সমস্যা থাকলে অতিরিক্ত এসিড বের করতে পারে না.

ফলে ইউরিক এসিড লিভার,কিডনি,বায়ুথলি,অন্ত্রে এবং হাটের ওপর জমা হয় ।

গাউট হলে ব্রয়লারে ২-৩% মারা যায় কোন সময় তা ১৫-৩৫% হতে পারে

মুরগি হল ইউরিকোটেলিক মানে উরিকেজ(uricase) এনজাইম নাই,তাই পানি ধরে রাখতে পারেনা.ফলে সেমিসলিড ইউরিক এসিড পায়খানার সাথে বের হয়.

poultry : lack of uricase and this along with process of water conservation allow them to excrete urine the form semisolid urine in feces.

কেন হয়:

১.পুষ্টিগত কারণ

অতিরিক্ত সোডিয়াম (৩%),সালফেট ও ডি৩।

সোডিয়াম বেশি হলে কিডনির উপর ধকল পড়ে।খাবারে( NaHco3 )সোডিয়াম বাই কারবোনেট বেশি দিলে ইউরিনের এল্কালিনিটি বেড়ে যায় ফলে কিডনিতে পাথর তৈরি হয়।

সালফেট বেশি হলে ক্যালসিয়ামের শোষণ(Resorption) বেশি হয় ফলে  ইউরিনে ক্যালসিয়ামের সিক্রেশন বেড়ে যায়।

বেশি ক্যলসিয়াম(৩%), ফসফরাস ও ভিটামিন এ এর ঘাটতি।

ফসফরাস কম থাকলে ক্যালসিয়াম ও সোডিয়ামের ক্রিস্টাল তৈরি হয়।

বেশি প্রোটিন(২৭%এর বেশি হলে),প্রোটিন বেশি খেলে মেটাবোলিক এলকালোসিস হয়,ফলে হাইপারক্যাসিইউরিয়া ও হাইপাক্যালসিমিয়া হয়।

প্রোটিনে যদি ইউরিয়া মিশায় তাহলে কিডনি নষ্ট হয়ে গাউট দেখা দেয়।

সালফার এমাইনো এসিড থেকে যে সালফেট ও হাইড্রোজেন আয়ন আসে তা ক্যালসিয়াম রিএবজোশনে বাধা দেয়।

শোডিয়াম বাই কার্বোনেট ১% যদি খাবারে থাকে তাহলে ইউরিনের পি এইচ বেড়ে যাবে ফলে ইউরোলিথিয়াসিস হয়।

ইউরিক এসিড কলোডাল নেগেটিভ চার্জ যা পজিটিভ চার্জ ক্যাটায়নের সাথে মিলিত হয়।

অনেক এলাকায় পানিতে ক্যালসিয়াম ও ম্যাগ্নেসিয়ামের লবন বেশি থাকে বিশেষ করে বাইকার্বোনেট,ক্লোরাইড,সালফেট যাতে পানির হার্ডনেস বেড়ে যায়।

মুরগির জন্য ১৫০০ এমজি হলো সঠিক হার্ডনেস।

#Feeding a vitamin A deficient diet for a prolonged period causes keratinization of tubular epithelium resulting in impaction of collecting ducts with cells debris and urates. thus leading to renal gout।

# High level of D3 increase Ca absorption from gut ,again leading to hypercalcaemia and possibly gout.

#Excess sodium chloride 3.8% in diet causes renal gout by reducing glumerular filtration and tubular efficiency and increasing plasma uric acid concentration

২.ব্যবস্থাপনা

পানিশূন্যতা হলে। নিচের কারণে পানি শুণ্যতা হয়ে থাকে যেমন
পানি বেশি গরম এবং বেশি ঠান্ডা,
পানির পাত্র বেশি উচু এবং কম পাত্র,
টিকা দেয়ার আগে পানি বন্ধ রাখা,
পানির পি এইচ খুব কম হলে,
পানিতে তুতে দিলে,
শীতকালে পানি কম খাইলে,
কিডনি ক্ষতি করে এমন ওষধ খাওয়ালে,
(এমিকাসিন,জেন্টামাইসিন)
ব্রুডিং এর সময় তাপমাত্রা এবং আর্দ্রতা ঠিক না থাকলে

তাপমাত্রা বেশি হলে

ইলেক্টোলাইটের ঘাটতি বা বেশি হলে

হ্যাচারীঃ
বেশিক্ষণ বাচ্চা হ্যাচারীতে থাকলে এবং রাখার রোম যদি ভাল না থাকে।
বেশিদূরে বাচ্চা গেলে এবং এই সময় যদি খাবার ও পানি না দেয়া হয়।

দূরে পরিবহণের সময় যদি তাপমাত্রা ও আর্দ্রতা যদি ভাল না থাকে।
ইনকিউবেশনের কন্ডিশন ভাল না হলে,
বাচ্চা অভুক্ত থাকলে।
ডিম স্টোরেজ কন্ডিশন ভাল না হলে।

৩.ইনফেকশনঃ

ব্রংকাইটিস(নেফ্রোজেনিক)
এস্টোভাইরাস।
এভিয়ান নেফ্রাইটিস ভাইরাস।
গাম্বোরু (IBD)।
এসাইটিস(হাইপোক্সিক কন্ডিশন ইউরিক এসিড বেশি তৈরি হয়।)
মাইকোটক্সিন(অক্রাটক্সিন,সাইট্রিনিন)

৪।স্ট্রেইনঃকিছু মুরগির স্টেইন গাউটের প্রতি রেজিস্টেন্ট।

# প্রতিরোধ :

ক রোগ নিয়ন্ত্রণ

ব্রংকাইটিসের টিকা দিতে হবে(ব্রিডার এবং বানিজ্যিক ব্রয়লার এবং লেয়ার)।

ব্রিডারে এভিয়ান নেফ্রাইটিস ও এস্টোভাইরাএসের টিকা দিতে হবে।আমাদের দেশে নাই।

নিরাপদ এন্টিবায়োটিক দিতে হবে।

মাইকোটক্সিন থেকে পোল্ট্র্যিকে মুক্ত রাখতে হবে।

ভাল টক্সিন বাইন্ডার ব্যবহার করতে হবে।

খ. হ্যাচারী এবং ফার্ম ব্যবস্থাপনা

সঠিক তাপমাত্রা এবং আর্দ্রতা ।
সঠিক স্টোরেজ কন্ডিশন এবং সঠিক ভাবে বাচ্চা হস্তান্তর,
বাচ্চা বেশিক্ষন হ্যাচারীতে রাখা যাবেনা এবং অভুক্ত ও পানি ছাড়া রাখা যাবেনা।
ভাল ভ্যান্টিলেশন এবং ব্রুডিং ব্যবস্থাপনা.

গ.খাবার এবং পানি

সুষম খাবার।

সোডিয়াম.০.৫% বেশি হবেনা।

পানিতে সোডিয়াম কত আছে জানতে হবে
বেশি থাকলে খাবারে কমাতে হবে(সোডিয়াম বাই কারবোনেট),

ইলেক্টোলাইট এবং গুড় দিতে হবে,

ভাংগা ভুট্টা খাওয়ানো যেতে পারে ৪-৫ দিন,খাবারের ৫০% বা ১০০%

খাবারে যাতে ইউরিয়া না মিশ্রিত হয়।

পর্যাপ্ত পানির পাত্র এবং উচ্চতা মুরগির চোখ বরাবর হতে হবে,

ইউরিন এসিডিফায়ার (kcl,NH3CL,NH4SO4,vinegar) দেয়া যেতে পারে।

মেথিওনিন হাড্রোজি এনালগ,ডাইইউরেটিক এবং ককোনাট পানি দেয়া যায়।

সোডিয়াম বাইকার্বোনেট ১গ্রাম পার লিটার কিন্তু পানিশুন্যতা হলে দেয়া যাবেনা।

ক্ষতিকর এন্টিবায়োটিকস,জীবানূনাশক,কেমিকেলস ও এন্টিকক্সিডিয়াল বেশি মাত্রায় দেয়া যাবে না।

মাইকোটক্সিন

অক্রাটক্সিন,ওস্পোরিন

১% অক্রাটক্সিন বাড়লে ২০% ইউরিক এসিড বেড়ে যায়।

গাউট কত প্রকার

ইউরিক এসিড কোথায় জমা হয় তার উপর ভিত্তি করে ২ভাগে ভাগ করা হয়েছে।

১.ভিসেরাল

এটি তীব্র ও খুব কমন,এতে প্রায় ১৫-৩৫% ব্রয়লার মারা যেতে পারে।
লিভার,হাট,অন্ত্র,কিডনি,এয়ারস্যাক এবং ফুসফুসে চকের মত সাদা সাইনি ক্রিস্টাল জমা হয়. ব্রয়লারে বেশি হয়.

১ দিন থেকেও হতে পারে,১-৩ সপ্তাহ পর্যন্ত বেশি হয়.

লেয়ারে পুলেটে মানে ১৪ সপ্তাহের দিকে হয়।
শুকিয়ে যায়,
ল্যাংড়া হয়ে যায়,
খাবার কম খায় কিন্তু পানি বেশি খায়।
পায়ুপথ ভিজা থাকে এবং চুনের মত লেগে থাকে।
এন্টারাইটিস হয়।

২.আরটিকুলার

ক্রনিক এবং লেয়ারে বেশি হয়।

বিভিন্ন জয়েন্ট,লিগামেন্ট এবং টেন্ডনে বেশি এসিড জমা হয়.
ব্যথা হয়।
খাবার কম খায়।
ঠিক মত দাড়াতে পারেনা।
ওজন কম হয়।

পোস্টমর্টেম ঃ

Irregular and excessive enlargement of kidney lobules.

urate crystal in renal tubules,visceral,joint

white chalky coating on kidney ,heart,proventriculus and lung.

white urate joint

লিভারের উপর চুনের মত সাদা পর্দা পড়ে

সাথে প্রায়ই ই- কলাই এর সাদা আবরণ থাকে।

কিডনি ফোলে যায়।

ইকলাই হলে লিভারের উপর পর্দা পড়ে এবং সেটা তুলা যায় কিন্তু গাউট হলে তুলা যায় না

লেগে থাকে।

চিকিৎসা ও প্রতিরোধ   gout(গাউট)

চিকিৎসায় ভাল ফলাফল পাওয়া যায়না।

#টক্সিন বাইন্ডার ও ভিনেগার দেয়া  যায়।

#ইউরিন এসিডিফায়ারঃগাউটের জন্য মেটাবোলিক এল্কালোসিস মেজর প্রিডিস্প্রোসিং ফ্যাক্টর হিসেবে কাজ করে তাই ইউরিনারি এসিডিফায়ার ব্যবহার করা হয়।

#হাই লেবেল মেথিওনিনঃ0.3-o.6%)।It protect kidney of immature pullets.The excess methionine catabolises and the thial group in methionone will be excreted as sulphate in urine.

#এমোনিয়াম ক্লোরাইড১০ গ্রাম /কেজি ও এমোনিয়াম সালফেট ৫.৩গ্রাম /কেজি ঃ increase acidity of urine and reduces incidence of urolithiasis.

Uroliths dissolve in acid urine and are converted into ammonium urates.

urinary acidifiers increase excretion of excessive dietary Ca,restoring Ca balance.

#Dietary allowances of Ca ,p and protein should meet but not exceed requirement.

#Feeding pre layer diet at the appropriate time.

#Ca should be offered as grit rather in powder form,which can lead to hypercalcaemia.

The slowly dissolving grit maintains a more constant blood Ca level.

# Thorough mixing of the feed,especially with respect to Ca and vitamin D3.

#যদি আইবি বেশি হয় তাহলে ১-২ দিনের মধ্যে টিকা দিতে হবে এবং প্রিলেয়ার ফিড দেরিতে দিতে হবে।

# মাইকোটক্সিন মুক্ত ফিড দিতে হবে যা ভাল জায়গায় স্টোর করা এবং রোদ্রে শুকানো

# পাখি যাতে সব সময় পানি খাতে পারে।

# পানির হার্ডনেস যাতে ১৫০০ এম জির বেশি না হয়।ক্যালসিয়াম ও ম্যাগ্নিসিয়াম বেশি হলে পানির হার্ডনেস বেড়ে যায়।

#এলোপিউরিনলঃ

Gout can be cured with allopurinol by inhibiting uric acid synthesis but it can cause further kidney damage so the dose rate should not exceed 25 mg /kg body wt and it must be properly mixed.

#এন্টিবায়োটিক ও আয়োনোফর দেয়ার ক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে।

#এ ডি ই,স্যালাইন দেয়া যেতে পারে,
#খাবার ৩-৪ ঘন্টা বন্ধ রাখা যেতে পারে ।

এত আলোচনার মাঝে আসল পয়েন্ট/ মূল কারণ

এভিয়ান নেফ্রাইটিস ভাইরাস,এস্টোভাইরাস ও আই বি ভাইরাস।এই ভাইরাস গুলো ঠান্ডা আবহাওয়ায় এবং শীতের শুরুতে বেশি এক্টিভিটি শো করে।

 শীতকালে পর্দার কারণে অক্সিজেনের ঘাটতি হয়(হাইপোক্সিক কন্ডিশন),শীতে বাচ্চা পানি কম খায়,হ্যাচারীর আর্দ্রতা ও তাপমাত্রায় পরিবর্তন এই ৩টি পয়েন্ট যা গাঊটকে প্রভাবিত করে।

শীতে হ্যাচারী থেকে দেরিতে বাচ্চা সাপ্লাই দিলে পানি শুণ্যতায় বাচ্চাতে গাউট হয়।

চিকিৎসা দিলেও ৫-১৫দিন মারা যায় এবং এরপর ভাল হয়ে যায়।

তাই ১০দিনের চিকিৎসা দিতে হবে যতে এই সময়ে ভাল হয়্রে যায়।

 



Please follow and like us:

About admin

Check Also

বাচ্চা মুরগিতে ১ম সপ্তাহে কেন রোগ কম হয়,২সপ্তাহের দিকে কেন বেশি হয়।

বাচ্চাতে ম্যাটার্নাল এম ডি এ নয়ে আসে যা প্রটেকশন দেয়।আবার ২ সপ্তাহে বা পরের দিকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »
error: Content is protected !!