Breaking News

এফ এম ডি (ক্ষুরারোগ)

FMD আক্রান্ত বাছুর কেন মারা যায় ? সাধারনত ভাইরাসটি হার্টে প্যাথোজেনেসিস শুরু করে । সেক্ষেত্রে হার্টে TIGER HEART DISEASE হয় । একটু খেয়াল করে দেখবেন হার্টের ভিতরটা ডোরাকাটা সাদা লাল স্ট্রাইপ ; অনেকটা টাইগার/বাঘের চামরার মতো হয়ে আছে । FMD বাছুরকে যেমন হার্টে আক্রান্ত করে তেমনি বড় গরুকেও করে ; তবে বড়গুলো অনেকটা কাটিয়ে উঠতে পারে বাছুর পারে না ; ধপাশ করে পরে গিয়ে মারা যায় ।
FMD কিভাবে ছড়ায় ? আপনার খামার কি আক্রন্ত হবার সম্ভাবনা আছে ? আপনার করনীয় কি ? কিভাবে খামারে Bio security mainten করবেন ? ধৈর্য্য সহকারে খামারী ভাইগন লক্ষ্য করুন ।
বর্তমানে জঙ্গিরা কিভাবে নতুন নতুন উপায়ে হামলা চালাচ্ছে ; খেয়াল করলে দেখবেন একসময় তারা শুধু জিম্মি করতো ; তারপর ভয় পাওয়ানোর জন্য বোমা ফোটালো; এখন সোজা মেরে ফেলে !! ভাইরাসও ঠিক তেমনি দিন দিন তার চরিত্র বদলায় ! আপনি প্রতিরোধ করবেন তো সে আবার নতুন রুপে আসবে ; আরো ভয়ন্কর হয়ে আঘাত হানবে । বর্তমানে যে স্ট্রেইনট্পিাওয়া যাচ্ছে তা হলো “O ” টাইপ ; খুবই ভয়ানক ; এমনকি বড় গরুও মেরে ফেলতে পারে । সম্প্রতি কলকাতায় এরকম টাইপ পাওয়া গেছে । আমাদের দেশে স্ট্রেইন বের করতে আরো সময় লাগবে । আমার সন্দেহ; কোরবানির সময় কলকাতা থেকে বর্ডার হয়ে কোরবানির গরুর মাধ্যমে তা আমাদের দেশে প্রবেশ করেছে ।
***যদি আপনার গরুকে খামারে চড়তে দেন খেয়াল রাখবেন অন্য কোন অপরিচিত গরু যেন সেখানে প্রবেশ করতে না পারে; কারন এটি হবে আপনার ভয়ের কারন । অন্য গরু থেকে তা ছড়াতে পারে । অপরিচিত মানুষকে শুধু কৌতুহল মিটানোর জন্য খামারে ঢুকতে দিবেন না ।
*** আপনার গোয়ালা/কাজের লোক কি ; আপনার খামার ছাড়াও অন্য কোন খামারে কাজ করে ! !? তাহলে সাবধান হোন ।
*** যে AI কর্মী বীজ দিচ্ছে সে কি আপনার খামারে ঢোকার পূর্বে অন্য কোন খামারে প্রবেশ করেছে ? যা কিনা এফএমডি আক্রান্ত !? কিংবা যে চিকিৎসক চিকিৎসা দিচ্ছে ?
*** যে গোয়ালা /দুধওলা দুধ নিচ্ছে; সে কি আপনার খামারে ঢুকে ? নাকি গেটের বাইরে থেকে দুধ নেয় ?
*** Visitor/ আগন্তুক/ অথিতি control করা খামারীদের জন্য ফরজে আইন !! শুধুমাত্র visit purpose এ কোন আগন্তুক যেন না ঢুকে । কিংবা ঢুকতে হলে যেন বায়োসিকিউরিটি মেনে ঢুকে ( পরে বলছি কিভাবে করবেন)।
*** ওষুধ কোম্পানির বা খাদ্য কোম্পানির লোক যেন মূল খামারে না ঢুকে । বাইরে থেকে প্রয়োজন শেষ করুন ।
********* যারা হাট থেকে নতুন গরু ক্রয় করেন ; তারা একটু বেশি সাবধান থাকবেন । কারন এটা হলো সবচেয়ে বড় সোর্স । গরু কিনে সাধারনত প্রথমেই মূল থামারে প্রবেশ করাবেন না । পনের দিন মূল খামার থেক্দেূরে রাখুন ; যদি এর মধ্যে কোন রোগ প্রকাশ না পায় তাহলে মূল খামারে প্রবেশ করান । তবে বিশ্বস্ত খামার থেকে ক্রয় করা ভালো । যাদের খামার একটু বড় তারা বাজার থেকে পারত পক্ষে ক্রয় করবেন না ।
*** যানবাহন ঢোকা নিয়ন্ত্রন করুন ।
কিভাবে করবেন ??
*** আপনার খামারের গেটের মেঝেতে তিন ইঞ্চি গভীর করে একটা ফুটবাথ করুন; যেখানে জুতাসহ পা ঢুবিয়ে সবাই ঢুকবে । ফুটবাথে ” পটাশ” পানি ব্যবহার করুন । কেউ যেন জুতা না ডুবিয়ে প্রবেশ না করে । সম্ভব হলে খামারের নিজস্ব গাম বুট পরে যেন প্রবেশ করে । পারলে ডেটল/ ডিসউনফেকটেন্ট স্প্রে করার ব্যবস্থা রাখুন । এটা যদিও ভিজিটরের/ কাজের লোক/ মালিক পক্ষ জন্য ঝামেলা / hazard তবুও তা আপনার খামারকে জীবানু আক্রমন হতে রক্ষা করবে । শতকরা নব্বই ভাগ অসুখ নিয়ন্ত্রন করা যাবে এভাবে । তাই ফুটবাথটি জরুরী (আমি পরে ফুটবাথ নিয়ে ছবিসহ একটি বিস্তারিত লিখা দিব ইনশাল্লাহ) । ফুটবাথের ব্যবহার অভ্যাস করুন ; এটা শুধু এফএমডি নয় সকল রোগের জন্যই কার্যকর একটা দিক ।
***
Dr Junaed Kabir

Please follow and like us:

About admin

Check Also

বাছুরের ডায়রিয়ার কারণ

Couses of diarrhea in neonatal rumenants 🔷Bacterial: 🔸Escherichia coli 🔸Salmonella spp. 🔸Campylobacter fecalis 🔸Campylobacter coli …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »
error: Content is protected !!