Breaking News

দুধের ন্যায্য মূল্য প্রতিষ্ঠায় করনীয় ঃ

দুধের ন্যায্য মূল্য প্রতিষ্ঠায় করনীয় ঃ
==============================
বাংলাদেশে দুধের চাহিদা পূরণে দেশীয় কৃষি অর্থনীতিতে “উন্নত বিদেশি গাভী” প্রতিপালন ব্যাপক ভাবে জনপ্রিয়তা পেয়েছে। আলহামদুলিল্লাহ্‌ । বাণিজ্যিক ভাবে গাভী প্রতিপালনে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ব্যবহার এখন দ্রুত জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। দুধের ননী এবং মিল্ক সলিড এর মান আগের তুলনায় বৃদ্ধি পেয়েছে কয়েক গুন। দেশীয় আবহাওয়ায় অধিক উৎপাদনক্ষম বিদেশি জাত এর অভাব এখন সময়ের চাহিদা, এটা কম বেশ আমরা সকলে অনুভব করছি । কারন আমরা সকলেই খামার কে বাণিজ্যিক ভাবে লাভবান দেখতে চাই।
এর জন্য প্রয়োজন দুধের ন্যায্য মূল্য প্রতিষ্ঠা । শুধু সরকারি আইন প্রয়োগে কি তা সম্ভব ?? … না । ব্যাপারটা এমন নয় ।
ডেইরী ফারমিং এর ব্যাপকতা বৃদ্ধির পাশাপাশি একে শিল্প পর্যায় নিয়ে যাওয়ার জন্য নিচের বিষয় গুলোর উপর এখন বিশেষ নজর দেয়ার সময় এসেছে । আমি লেখাটিকে দুই ভাগে ভাগ করে দিচ্ছি। আশা রাখি শেষ পর্যন্ত পড়বেন ।
(১) কিছু কঠিন ভাষা
———————-
** গতানুগতিক দুগ্ধ জাত পণ্য ছাড়া-ও অন্যন্য দুগ্ধ জাত পণ্যর উপর প্রাতিষ্ঠানিক ভাবে পরীক্ষণ- নিরিক্ষন, বানিজ্যিক ভাবে প্রচার প্রসারন ও বাজারজাত করনে সরকারের উদার বাণিজ্য বান্ধব নীতি অবলম্বন ।
** দুগ্ধ পণ্য পক্রিয়াজাত কারি এবং আমদানিকারকদের প্রতি সতর্ক মূলক অবস্থান ।
** ভোক্তা কুলে দেশীয় উৎপাদিত পণ্যর আস্থা তৈরিতে সরকারি ও বেসরকারি পৃষ্ঠপোষকতা ।
** ব্যাক্তি/ প্রতিষ্ঠান / সমবায় উদ্যোগে থানা বা জেলা পর্যায় এ চিলিং সেন্টার তৈরি ।
** সমবায় সমিতির মাধ্যমে উৎপাদিত দুধের মান নিয়ন্ত্রন । ( এটি একটি বৃহৎ আলোচনার ইঙ্গিত মাত্র)
** সমবায় ও পক্রিয়াজাতকারক ব্যাক্তি/ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে চুক্তি ভিত্তিক সমন্বয় সৃষ্টি।
** উৎপাদক – পক্রিয়া জাতকারক – বণ্টন এর মধ্যে সমন্বয় সৃষ্টি ।
(২) কিছু সহজ ভাষা
————————
** শখ হয়েছে , চলেন গরু পালি। আজ কাল অনেকের মধ্যে এটা একটা ট্রেন্ড বা Posh Tendency হয়ে গেছে। দয়া করে এমন করবেন না ।
** শুনেছি গরু ব্যবসায় প্রচুর লাভ চলেন পাড়া প্রতিবেশি নিয়ে গরু ব্যবসা শুরু করি । হুজগে নাচবেন না। এতে নিজের ও আশে পাশের সবার ক্ষতি ।
** দেশের একটি বিশাল বেকার জনগোষ্ঠীর পাশা পাশি অনেক সরকারি বেসরকারি চাকুরিজীবী ও এই পেশায় চলে আসছেন । অনেক নাম করা স্বনাম ধন্য ব্যবসায়ীরা ও ডেইরী ফার্মে ঝাপিয়ে পড়ছেন । এতে দুটি সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে ।
ক) যারা বেকার হয়ে ব্যবসাটি কি শিখতে ও জানতে চাচ্ছিলেন তারা আবার অস্থিরতায় ভুগছেন।
খ) কর্মে ক্ষেত্রর সুষম বণ্টন ব্যাপক ভাবে বাধা গ্রস্থ হচ্ছে।
আপনার নির্ধারিত কর্মের প্রতি সন্তুষ্ট থাকুন । এবং ব্যাক্তি স্বার্থর চেয়ে সামস্টিক স্বার্থ কে বেশি প্রাধান্য দিন ।

** যারা জীবন যুদ্ধে সফল কাম হওয়ার জন্য খামার কে নিজের জীবনে অলরেডি যোগ করে ফেলেছেন, তাদের বলছি। আপনারা আপনাদের সহ খামারি ভাইদের সাথে একত্রিত হন । এবং নিজদের সংগঠিত করে আপনাদের সমস্যা গুলো তুলে ধরুন। থানা ভিত্তিক সমস্যা গুলো জানা থাকলে সেভাবে অগ্রসর হতে অনেক সুবিধা। বিচ্ছিন্ন ভাবে কিছু ই হবে না ।
** আপনার খামারি বন্ধুকে ব্যবসায় সাহায্য করার জন্য খামার সহযোগী অন্য ব্যবসা/ সেবা গুলোতে আপনি দক্ষতা অর্জন করুন। প্রশিক্ষন নিন।
সব শেষে বলবো হুজুগে নয়, পরিকল্পনা করে আগান। নগদ লাভে ব্যবসা পরিকল্পনা নয়, বরং সুদূর প্রসারি ব্যবসায়িক নীতি অবলম্বন ই এনে দিতে পারে সার্বিক অর্থনৈতিক মুক্তি। আপনার অভাবী আত্মীয় স্বজন দের যাকাত এর অর্থ দিয়ে একটি ভাল জাতের গাভী কিনে দিন । অন্য বন্ধু কে ও সে ভাবে উৎসাহিত করুন। খাদ্য ও পানীয়তে দুধ জাত পণ্য ও খাঁটি দুধ যোগ করুন। দুনিয়া ও আখিরাতে আল্লাহ সুব হানাহু আপনাদের সব দিক দিয়ে লাভবান ও রক্ষা করবেন ইনশাআল্লাহ।

ফেসবুক থেকে নেয়া

Please follow and like us:

About admin

Check Also

গবাদিপশুর খামারের জন্য পুষ্টিকর খাদ্যের তালিকা:

গবাদিপশুর খামারের জন্য পুষ্টিকর খাদ্যের তালিকা: গবাদিপশুর খামারের জন্য পুষ্টিকর খাদ্যের তালিকা সম্পর্কে আমাদের অনেকেরই …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »
error: Content is protected !!