Breaking News

ক্রস এবং অরিজিনাল ফ্রিজিয়ান গাভী চিনার কিছু সহজ উপায় :

ক্রস এবং অরিজিনাল ফ্রিজিয়ান গাভী চিনার কিছু সহজ উপায় :
…………………………………………………………
শ্রদ্ধেয় নতুন খামারী ভাইয়ারা আস্ সালামু য়ালাইকুম……খামার শুরু করার পূর্বে গরুর জাত চিনাটা খুবই জরুরী। ক্রস এবং অরিজিনাল ফ্রিজিয়ান গাভী দেখতে প্রায় একই রকম তাই নতুন খামারীগণ গাভী কিনতে যেয়ে প্রতিনিয়ত প্রতারণার শিকার হচ্ছে। নীচে ক্রস এবং ফ্রিজিয়ান গাভীর কিছু পার্থক্য ছবিসহ তুলে ধরা হল যাতেকরে সকলে সহজে বুঝতে পারেন। বৈশিষ্ট্যগুলোকে ক্রমানুসারে নীচের ছবির সাথে মিলিয়ে নিবেন এবং মনে রাখার চেষ্টা করবেন আশাকরি উপকৃত হবেন।

1. ক্রস গাভীর নাভি ঝুলানো থাকবে যা অরিজিনাল ফ্রিজিয়ান গাভীতে কখনও দেখা যায়না।( ছবিতে 1 চিন্হিত বৃত্তগুলো লক্ষ্য করুন)

2. ক্রস গাভীর গলকম্বল থাকে আর অরিজিনাল ফ্রিজিয়ান গাভীর কোন গলকম্বল থাকেনা অর্থাৎ গলা অনেকটা উটের মত থাকবে।(ছবিতে 2 চিন্হিত অংশ গুলো লক্ষ্য করুন)

3. ক্রস গাভীর দুগ্ধশিরা (Milk Vain) চিকন/সরু হয়, অনেকক্ষেত্রে বুঝা যায়না। অরিজিনাল ফ্রিজিয়ান গাভীর দুগ্ধশিরা (Milk Vain) খুবই স্পষ্ট এবং মোটা অনেকক্ষেত্রে 1.5 থেকে 2 ইন্চি মোটা পর্যন্ত হয়ে থাকে।(ছবিতে 3 চিন্হিত অংশ লক্ষ্য করুন)

4. অরিজিনাল ফ্রিজিয়ান গাভীর ওলান তুলনামূলকভাবে খুবই বৃহৎ আকারের হয়।
(ছবিতে 4 চিন্হিত অংশ গুলো লক্ষ্য করুন)

5. অরিজিনাল ফ্রিজিয়ান গাভীর লেজ ছোট এবং চিকন। (ছবিতে 5 চিন্হিত অংশ গুলো লক্ষ্য করুন)

6. অরিজিনাল ফ্রিজিয়ান গাভীর জিহ্বা সাদা, শিং সাদা এবং শরীরের সামনের অংশ চিকন / সরু ও পিছনের অংশ ক্রমান্বয়ে বড় হয়।

বি:দ্র:
** উপরে বর্ণিত যেকোন একটি বৈশিষ্ট্যর কমতি হলে সেটাকে অরিজিনাল ফ্রিজিয়ান গাভী বলা যাবে না।

** বকনার জন্য 3 এবং 4 বাদে বাকি বৈশিষ্ট্য গুলো লাগবে । আবার অনেক ক্ষেত্রে কিছু কিছু বকনার ছোট সময় থেকে 3 নং বৈশিষ্ট্য লক্ষ্য করা যায়।

Please follow and like us:

About admin

Check Also

মহিষ – রিভার টাইপ আর সুয়াম্প টাইপ এর পার্থক্যঃ

মহিষ – রিভার টাইপ আর সুয়াম্প টাইপ এর পার্থক্যঃ আসলে সাধারনত, দক্ষিণ পূর্ব এশীয়ায় অরিজিনেটেড …

Leave a Reply

Your email address will not be published.