Breaking News

রোগের চিকিৎসা করা ঠিকনা।চিকিৎসা করতে হবে রোগের অবস্থা/ধরণের।বিস্তারিত জানা।দরকার।

রোগের চিকিৎসা করা ঠিকনা।চিকিৎসা করতে হবে রোগের অবস্থা/ধরণের।বিস্তারিত জানা।দরকার।

আমরা নরমালী বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা দিয়ে থাকি বা শিখে থাকি।
এই রোগের এই চিকিৎসা,এটা ভুল।
চিকিৎসা হবে রোগের অবস্থার বা ধরণের উপর।তাছাড়া শুধু চিকিৎসা করতে হবে তা কিন্তু ঠিক না
প্রোগ্নোসিসও করতে হবে।প্রোগ্নোসিস কেও একটা সিস্টেমে নিয়ে আসতে।হবে কারণ ৩০-৪০% ভাইরালে কেসে চিকিৎসা অর্থহীন মানে কাজ হয় না।মুরগি মারা যায়।

বিভিন্ন রোগ যেমন
গাম্বোরু বা রানিক্ষেত সহ অন্যান্য রোগের এই চিকিৎসা এটা বলা যাবে না।এসব ভুল সিস্টেম।
যতক্ষণ না রোগের অবস্থা না বুঝা যাবে ততক্ষন চিকিৎসা দেয়া যাবেনা।

উদাহরন হিসাবে নিচে গাম্বোরু রোগের বিভিন্ন স্টেজ/ধরণ/অবস্থার ব্যাখ্যা দেয়া হল।

গাম্বোরু সিংগেল বা মিক্স ইনফেকশন আকারে হতে পারে। মিক্স ইনফেকশন ও আবার বিভিন্ন ধরণের হয় যেমন কক্সি,মাইকোটক্সিন,ই ক্লাই,সাল্মোনেলা,রানিক্ষেত,মাইকোপ্লাজমা,এ আই,আই বি এইচ,গাউট,
আবার বয়স,স্টেস,স্পিসিস,স্ট্রেইন,সিজন অনুযায়ী তীব্রতা কম বেশি হয়।

আমাদের দেশে যে গাম্বোরু হয় তার ৫০% সিংগেল বা নরমাল গাম্বোরু যার জন্য কোন এন্টিবায়োটিক লাগবে না।

কিন্তু আমরা সব গুলোকে জটিল মনে করে এন্টিবায়োটিক দিয়ে একই চিকিৎসা দিচ্ছি।এতে খরচ বেশি হচ্ছে। হাজারে ৫০০০টা খরচ হচ্ছে যা কমানো যায়।

এখন দেখবো গাম্বোরু রোগের ধরণ কি কি।

১.শুধু গাম্বোরু ৫% বা এর কম মর্টালিটি হয়। ৫০% কেস এর ক্ষেত্রে যেখানে এন্টিবায়োটিক লাগবে না।
২.গাম্বোরু+কক্সি
৩.গাম্বোরু+মাইকোটক্সিন
৪.গাম্বোরু+কক্সি+মাইকোটক্সিন
৫.গাম্বোরু+ইক্লাই+কক্সি
৬.গাম্বোরু+সাল্মোনেলা+কক্সি
৭.গাম্বোরু+ইক্লাই+মাইকোপ্লাজমা+কক্সি
৮.গাম্বোরু+রানিক্ষেত।
৯.গাম্বোরু+আই বি এইচ
১০.গাম্বোরু+গাউট
এসব ক্ষেত্রে একেক অবস্থায় মর্টালিটি ও মর্বিডিটি একেক রকম তাই চিকিৎসা ও হবে একেক রকম।

৫% এর কম মর্টালিটির ধরণ কেমনঃ

হাজারে ৫টা মারা যায়
হাজারে ১০
হাজারে ২০টা
হাজারে ৩০টা
হাজারে ৪০
হাজারে ৫০টা মারা যায়।
তাই অবস্থা অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে হবে।

তাহলে বুঝবো কি করে কয়টা মারা যাবে বা কি কি মিক্স ইনফেকশন আছে।

মর্টালিটির ধরণ এবং পি এম করে বুঝা যাবে।
যেমন গাম্বোরুর ক্ষেত্রে ৩তম দিনে ১ম মুরগি মারা যায়।
১ম দিনে যা যায় ২য় দিনে তার দ্বিগুন
২য় দিনে তার দ্বিগুণ
৩য় দিনে সর্বোচ্চ
৪র্থ দিনে একই বা কমে যায়।
পরের দিন থেকে কমতে থাকে।
এই স্টেজ হল জটিল গাম্বোরুর ক্ষেত্রে অন্য ক্ষেত্রে কিছুটা কম হবে।

আরো কিছু রোগের ধরণ/তীব্রতা দেয়া হল।

২.রানিক্ষেতঃ
লেন্টোজেনি
মেসোজেনিক
ভেলোজেনিক
ভেরি ভেলোজেনিক
রোলিং ইনফেকশন
টাইটার বেশি বা কম
ভ্যাক্সিন রিয়েকশন
মিক্সি ইনফেকশন(রানিক্ষেতের সাথে কক্সি/মাইমোপ্লাজমা/এ আই/গাম্বোরু/মাইকোটক্সিন/কলেরা/আই বি

২.আই বি
শুধু আই বি
নেফ্রোজেনিক আই বি

আই বি (ব্রয়লারে)
আই বি লেয়ারে (প্রডাকশন)
আই বি গ্রোয়িং পিরিয়ডে
আই বির সাথে রানিক্ষেত বা এ আই

৩.আই বি এইচ
শুধু আই বি এইচ
আই বি এইচ + মাইকোটক্সিন
আই বি এসি +আমাশয়
আই বি এইচ+গাম্বোরু

৪.মাইকোপ্লাজমা
শুধু মাইকোপ্লাজমা
মাইকোপ্লাজমা+এ আই
মাইকোপ্লাজমা +করাইজা
মাইকোপ্লাজমা +রানিক্ষেত
মাইকোপ্লাজমা ব্রয়লার/লেয়ার

৫.এ আই

এ আই (৯)ব্রয়লারে অনেক মারা যায় কিন্তু লেয়ারে মারা যায় না বা গেলেও অল্প যায়।
এ আই (৫)
এ আই (৭)
এ আই +মাইকোপ্লাজমা
এ আই+রানিক্ষেত
এ আই+কলেরা
এ আই+ আই বি
এ আই+করাইজা
এ আই গ্রোয়ারে/প্রডাকশনে

৬.করাইজা
সিংগেল করাইজা
করাইজা+ আই বি
করাইজা+মাইকোপ্লাজমা
করাইজা+আই বি+মাইকোপ্লাজমা
করাইজা+ এ আই
করাইজা+ মাইকোপ্লাজমা + এ আই
করাইজা+ইক্লাই

৭.টাইফয়েড
শুধু টাইফয়েড
টাইফয়েড + ইক্লাই
টাইফয়েড +মাইকোটক্সিন
লোকাল
সিস্টেমিক
একিউট/পার একিউট
ক্রনিক

৮।কলেরা
শুধু কলেরা
কলেরা+ এ আই
কলেরা +রানিক্ষেত
লোকাল
সিস্টেমিক
একিউট/পার একিউট

৯.গাউট
শুধুগাউট
গাউট+ইক্লাই
গাউট+কক্সি
গাউট+গাম্বোরু
গাউট+আই বি
গাউট+মাইকোটক্সিন
ভিসেরাল/আর্টিকোলার

১০.কলিব্যাসিলোসিস

শুধু ইক্লাই
ইক্লাই+গাম্বোরু
ইক্লাই+কক্সি
ইক্লাই+মাইকোপ্লাজমা
ইক্লাই+এ আই
ইক্লাই+করাইজা
লোকাল ইকলাই
সিস্টেমিক ইক্লাই
একিউট/ক্রনিক

১১.নেক্রোটিক এন্টারাইটিস
শুধু নেক্রোটিক এন্টারাইটিস
নেক্রোটিক এন্টারাইটিস +কক্সি

নেক্রোটিক এন্টারাইটিস +সাল্মোনেলা

একিউট
মাইল্ড

১২.আমাশয়
শুধু আমাশয়
আমাশয় +সালমোনেলা
আমাশয়+ইক্লাই
আমাশয় +নেক্রোটিক এন্টারাইটিস
আমাশয়+মাইকোটক্সিন
আমাশয় +গাম্বোরু
আমাশয় +রানিক্ষেত
আমাশয়+মাইকোপ্লাজমা
আমাশয়(টেনেলা/নেকাট্রিক্স/ব্রনেট্রি বা এসারবুলিনা বা ম্যাক্সিমা
মারা যায় বা যায়না।

১৩.মারেক্স
শুধু মেরেক্স
মেরেক্স +ইক্লাই
মেরেক্স+সালমোনেলা
মেরেক্স+রানিক্ষেত
মেরেক্স+এ আই
মেরেক্স+কক্সি/নেক্রোটিক এন্টাররাইটিস

লিউকোসিসের ক্ষেত্রেই প্রায় একই।

মারেক্স/লিউকোসিসের ক্ষেত্রে অনু মিক্স ইনফেকশন জেনেও তেমন কিছু করার থাকেনা।তবে সেকেন্ডারী ইনফেকশনে যাতে ভাল মুরগির ক্ষতি না হয় সেদিকে মনোযোগ দেয়া উচিত।

১৪.পক্স
শুধু পক্স
পক্স+ইক্লাই
পক্স+স্টেফাইলোকক্কাস
ড্রাই পক্স
ওয়েট পক্স

১৫.পুলোরাম
শুধু পুলোরাম
পুলোরাম+ কক্সি
পুলোরাম + ইকলাই
পুলোরাম বাচ্চা মুরগি
পুলোরাম প্রডাকশন মুরগি।
একিউট
ক্রনিক

১৬.ফ্যাটি লিভার/ফ্যাটি লিভার হেমোরেজিক সিন্ড্রম

১৭.কৃমি
কৃমি+এন্টারাইটিস

১৮.হিট স্টোক

১৯.রিও
শুধু রিও
রিও +কক্সি

২০.আই এল টি।
শুধু আই এল টি

২১.ব্রুডার নিউমোনিয়া

শুধু নিউমোনিয়া

২২.এসাইটিস

শুধু এসাইটিস
এসাইটিস +ইক্লাই

২৩.ভিটামিন মিনারেলস এর ঘাটতি

২৪.এগ বাউন্ড/এগ পেরিটোনাইটিস

২৫.জি ডি

২৬.স্ট্রেস
ক্রনিক
একিউট

২৭.

নোটঃ১
মোটামুটি এইভাবেই হয়ে থাকে তবে ১০০% বলতে কোন কথা পোলট্রিতে নাই।

নোট ২.পোল্ট্রিতে সব কিছুতেই ঝিকে মেরে বউকে শিখানোর মত। তাই যে কোন বিষয়/রোগের আলোচনার ক্ষেত্রে অন্য বিষয়/রোগের প্রায় একই নিয়ম তা বুঝে নিতে হবে।

প্রেসক্রিপশন কেমন হবে তা কিসের উপর নির্ভর করে
১.এজেন্ট
২.প্যাথোজেনেসিস
৩.মর্টালিটি/মরবিডিটি
৪.স্ট্রেইন
৫.স্ট্রেস কন্ডিশন
৬.বয়স
৭.রোগের অবস্থা(সাব ক্লিনিকেল,পার একিউট,একিউট,ক্রনিক,লোকাল,সিস্টেমিক)
৮.পূর্বের ব্যবহৃত এন্টিবায়োটিক।

Please follow and like us:

About admin

Check Also

বাচ্চা মুরগিতে ১ম সপ্তাহে কেন রোগ কম হয়,২সপ্তাহের দিকে কেন বেশি হয়।

বাচ্চাতে ম্যাটার্নাল এম ডি এ নয়ে আসে যা প্রটেকশন দেয়।আবার ২ সপ্তাহে বা পরের দিকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »
error: Content is protected !!