Breaking News

মহাঔষুধি_সজনে_পাতা_রোগ_নিরাময়ে_অলৌকিক_ক্ষমতাধারী

মহাঔষুধি_সজনে_পাতা_রোগ_নিরাময়ে_অলৌকিক_ক্ষমতাধারী
সজনে (বৈজ্ঞানিক নাম: Moringa oleifera) হচ্ছে Moringaceae পরিবারের Moringa গণের একটি বৃক্ষ জাতীয় গাছ। সজনের কাঁচা লম্বা ফল সবজি হিসেবে খাওয়া হয়, পাতা খাওয়া হয় শাক হিসেবে।

বাংলাদেশে সজিনা বা সজনে নামেই পরিচিত। ইংরেজিতে সজিনার নাম ‘ড্রামস্ট্রিক’, যার অর্থ ঢোলের লাঠি। নামটি অদ্ভুত হলেও এটি একটি অতিপ্রয়োজনীয় জীবনরক্ষাকারী উদ্ভিদ। বাংলাদেশে এটি নিয়ে তেমন গবেষণা না হলেও বিশ্বের বহু দেশে এ নিয়ে অনেক গবেষণা হয়েছে; বিশেষ করে গাছ বৃদ্ধিকারক হরমোন, ওষুধ, কাগজ তৈরি ইত্যাদি।

সজনে গাছের পাতাকে বলা হয় অলৌকিক পাতা। এটি পৃথিবীর সবচেয়ে পুষ্টিকর হার্ব। গবেষকরা সজিনা পাতাকে বলে থাকেন নিউট্রিশন্স সুপার ফুড এবং সজনে গাছকে বলা হয় মিরাক্কেল ট্রি।চার হাজার বছর ধরে নানা চিকিৎসায় এ গাছের ব্যবহার হয়ে আসছে। প্রায় ৩০০ রকমের অসুখের চিকিৎসা হয় এই গাছ দিয়ে।

সজনে পাতা রুমিনেন্ট জাতীয় প্রাণীদের ক্ষেত্রে প্রোটিনের একটি অন্যতম উৎস হিসেবে ব্যবহার করা হয় যার মাঝারি মানের রুচিকরতা বিদ্যমান। পোল্ট্রি, ছাগল,ভেড়া, খোরগোশ এবং মাছের জন্য খাদ্য হিসেবে এই পাতা ও বীজের ব্যবহার বেশ কার্যকর। পোল্ট্রির ক্ষেত্রে সজনের ব্যবহার জাদুকরী ফল বয়ে আনে।

🌱 পোল্ট্রির জন্য পানি বিশুদ্ধ করতে আমরা প্রাকৃতিক ও কৃত্রিম নানা পদ্ধতি ব্যবহার করি। সাম্প্রতিক গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে, সজিনার দানা পানি বিশুদ্ধকরণে সবচেয়ে ভালো প্রাকৃতিক উপায়। উপস্যুলা বিশ্ববিদ্যালয় প্রকাশিত সাম্প্রতিক এক গবেষণা সন্দর্ভে বলা হয়েছে, সজিনার দানা পানি দূষণ রোধ করে, পানিতে কোনো রকম দূষণীয় ব্যাকটেরিয়া বা অন্য কোনো অণুজীব উপদান দ্রবীভূত হতে দেয় না। আমেরিকা, নামিবিয়া, ফ্রান্স ও বতসোয়ানার কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে, সজনের আণবিক্ষণিক প্রোটিন উপাদান পানি বিশুদ্ধকরণে বিশেষ ভূমিকা রাখে। একইভাবে সজনে পোল্ট্রির শরীরকে বিশুদ্ধ রাখে। সজনেকে আজকের বিশ্বে ‘সুপার ফুড’ হিসেবে চিহ্নিত করা হচ্ছে।

🌱 সজনের পাতা ভিটামিন এ-এর এক বিশাল উৎস। সজনের পাতা এবং ফল উভয়ের মধ্যেই বিপুল পরিমাণে পুষ্টি আছে। এতসব পুষ্টিগুণ একসাথে আছে বলেই এর মাধ্যমে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা এবং পুষ্টি দুটোই পাওয়া যায়।

🌱 সজনের পাতাকে এন্টি-অক্সিডেন্টের খনি বলা যায়। এর মধ্যে ভিটামিন সি, বেটা-কেরোটিন, কিউরেকটিন এবং ক্লোরোজেনিক অ্যাসিড বিদ্যমান। উল্লেখ্য, এসব উপাদান পোল্ট্রির জন্য বেশ উপকারি।

🌱 লেখার শুরুতেই সজিনার পুষ্টি গুণের কথা বলা হয়েছে। প্রোটিন, ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, পটাসিয়াম, ক্যালসিয়ামের পাশাপাশি এতে আয়রনও আছে। আয়রনের দিক থেকে এটি পালং শাকের চেয়ে ৫ গুণ বেশি শক্তিশালী।

🌱পানিতে আর্সেনিক দূষণ একটি বৈশ্বিক সমস্যা। এই সমস্যা নিরোধে সজেনের বীজ কিংবা পাতা বিপুল ভূমিকা রাখে।

🌱 প্রতিদিন সকালে খাবারের আগে ১লিটার পানিতে ১চামুচ সজনে পাতার রস পোল্ট্রিকে খাওয়ালে, ঠান্ডা জনিত সমস্যা হতে দূরে রাখে ও নাকে ময়লা জমতে দেয়না।

🌱পোল্ট্রির চোখে ঘা বা ময়লা জমে চোখ ফুলে গেলে,সজনে পাতা সিদ্ধ পানি ড্রপার দিয়ে চোখে দিয়ে কয়েকবার মুছে দিলে, দ্রুত ই সেরে উঠবে।

🌱 কোনো রকম আঘাত জনিত ক্ষত বা ইনফেকশন হলে সজনে পাতার পেস্ট বানিয়ে প্রলেপ দিলে ,ক্ষত সেরে যাবে।

🌱 সজনের পাতা ও ফল লিভার টনিক ও কৃমি নাশক হিসেবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

🌱যেসব পোল্ট্রি সবুজ শাক সবজি খেয়ে থাকে,,তাদের জন্যে দারুন উপকারী।কারণ ইচ্ছা করলে তাদের শাক সবজি খাবারের সাথে সজনে পাতাও খাওয়ানো যায়।প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি থাকার ফলে তাদের রুচি বাড়ে এবং গ্রোথ ভালো হয়।

🌱পোল্ট্রির পক্স বা বসন্ত বা পোকামাকড়ের কামড়ে গুটি বের হলে ,সেখানে সজনে পাতার পেস্ট লাগিয়ে দিলে ,তাড়াতাড়ি সেরে ওঠে। তাছাড়া প্রতিদিন পানিতে সজনে পাতার পেস্ট বা রস খাওয়ালে বসন্ত রোগ হবারই সুযোগ পায় না।

🌱 সজেনে পাতায় রয়েছে কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন , ভিটামিন, ক্যালসিয়াম , ম্যাগনেসিয়াম, পটাসিয়াম ও জিংক এবং ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করার ক্ষমতা।

🌱বিজ্ঞানি দের মতে সজনে পাতা ও ডাটা তে এমাইনো এসিড বিদ্যমান যা পোল্ট্রির শরীর গঠন তথা যেকোনো প্রকার ব্যথা উপশমে সক্ষম।

🌱 পোল্ট্রির হজম না হওয়া,পেট ফোলা বা ফাঁপা ,পেটের সমস্যা এসব এড়াতে সজনে পাতার রস খুব উপকারী।

🌱 সজনে পাতা পোল্ট্রির বিভিন্ন ধরনের সংক্রমণের বিরুদ্ধে কাজ করে।

🐶🐶 কুকুর কামড়ালে 🐶🐶 সজনে পাতা পিষে তাতে রসুন, হলুদ, লবণ ও গোল মরিচ মিশিয়ে পোল্ট্রিকে খাওয়ায় দিলে কুকুরের বিষ নষ্ট হয়।🐕🐕
(সব উপকরণ মিলিয়ে ১ চামুচ পরিমান।)

নিয়মিত সজনে পাতার ব্যবহারের ফলে খামারে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে ব্যাপক উপকার পাওয়া সম্ভব।সবচেয়ে বড় বেপার ওষুধের খরচ কম যাবে অধিক অংশে।
প্রকৃতিতে সব রকম রোগের ওষুধ ই বিদ্যমান।ইউনানী ও আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে বহু বছর ধরেই এর ব্যবহার চলে আসছে। আমরা নতুন করে এই সুপার ফুড আর বিস্ময়কর বৃক্ষের কথা ভাবতে পারি।।
তাই আমাদের উচিত সজনে পাতা ও বীজের ব্যবহার বাড়িয়ে,উপকৃত হওয়া।।প্রয়োজনে খামারে আসে পাশে সজনের গাছ লাগানো।।

🌱🌱🌱Accept nature’s gift ,, be and keep healthy🕊️🕊️🕊️🕊️🦋🦋🦋

Originated by
Joya K Ahmed

Please follow and like us:

About admin

Check Also

লবঙ্গ

লবঙ্গ (Syzygium aromaticum, অন্য নাম Eugenia aromaticum or Eugenia caryophyllata) এক প্রকারের মসলা ও ভেষজ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »
error: Content is protected !!