Breaking News
ভ্যাক্সিন
ভ্যাক্সিন

ভ্যাক্সিনের ইতিহাস

Collected post

চিকিৎসা বিজ্ঞানে বিংশ শতাব্দীর সবচেয়ে বড় আবিষ্কারগুলো কি? নি:সন্দেহে গুটি বসন্ত নির্মুল কিংবা আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে হাজারশিশুর জীবন বাঁচানো ওরস্যালাইন এসবের নাম আসবে কিন্তু তার পাশাপাশি যে নামটি আসবে সেটা অবশ্যই পোলিও নির্মুলকরন।
গ্রীষ্ম মানেই সবার মনে খুশির (পশ্চিমারা) হাওয়া কারন পরিবারসহ বেড়াতে যাওয়া যাবে, সমুদ্রস্নান ও হবে কিন্তু পন্ঞ্চাশের দশকের আমেরিকানদের কাছে গ্রীষ্ম মানেই ছিলো রীতিমতো আতংকের আর এ আতংকের কারন একটিই সেটা হলো Americans lived in fears of paralytic poliomyelitis. তাই এই infantile paralysis এর কারন হিসেবে ধারনা করা হতো গ্রীষ্মের অস্বাস্হ্যকর পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্হাই পোলিওর অন্যতম বাহক।

যেহেতু আটকানো যাচ্ছেনা কি আর করা স্কুল,মুভি থিয়েটার সুইমিংপুলগুলো বন্ধ ঘোষনা করা হয়। হাসপাতালগুলোতেও ভীড় কারন এ রোগের বৈশিষ্ঠ্যের একটি হল প্যারালাইজডের কারনে নিঃশ্বাস ও প্রশ্বাসের অসারতা আর সে জন্য শিশুদের কৃত্রিম শ্বাসযন্ত্র Iron lungs chest chamber এ রাখা হতো।

গোঁদের উপর বিষফোড়ার মত হলো যখন প্রেসিডেন্ট রুজভেল্ট একদিন ঘুম হতে উঠে দেখেন তার বাম হাত অসাড় তাই রীতিমত যুদ্ধ ঘোষনা করলেন এ রোগের বিরুদ্ধে…
একজন জোনাস স্বাল্ক:
সময় তখন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের আর সেসময়ের পিটসবার্গ মেডিসিন স্কুলের রিসার্চার জোনাস স্বাল্ক ভাবতে লাগলেন তার পিএইচডি বায়োকেমিস্ট্রি নাকি মেডিসিনে সম্পন্ন করবেন। তাত্বিক দ্বন্দ্ব কাটিয়ে তিনি দেশজুড়ে চলমান পোলিও রিসার্চে মন দেয়ার জন্য মেডিসিনেই পিএইচডিটা করলেন।

সেসময় বিজ্ঞানীররা ভাবতেন জীবিত Strain দ্বারাই একমাত্র vaccine তৈরি করলে তার কার্যকারিতা থাকবে। কিন্তু influenza research এর সময় স্বাল্ক দেখেছিলেন killed strain দ্বারাও ভ্যাকসিন তৈরি সম্ভব।

এবং তার ধারাবাহিকতায় তিনি পোলিওর প্রথম killed vaccine তৈরি করলেন। কিন্তু সমস্যার কার্যকর সমাধান হলোনা কারন killed vaccine তৈরিতে অনেক বেশি virus দরকার যার বাণিজ্যিক উৎপাদন কষ্টসাধ্য।

সমাধান করলেন সেই স্বাল্ক, বানরের কিডনি কোষেকে তিনি ফরমালডিহাইড ইনএক্টিভেশন করে সেল লাইন তৈরি করেন এবং পোলিও আক্রান্ত শিশুদের ট্রায়ালে এন্টিবডি মেপে দেখলেন ভ্যাকসিন প্রতিরোধ করছে..এলাহী ব্যাপার।

রাতারাতি আমেরিকার ন্যাশনাল হিরো বনে গেলেন স্বাল্ক
আলোকবর্তিকা হাতে স্যাভিন:
পিটার্সবার্গ হতে অদুরেই স্বাল্কের সমসাময়িকে সিনসিনাটি মেডিকেল সেন্টারে রিসার্চ করতেন আলবার্ট স্যাভিন। তিনি বিশ্বাস করতেন প্রথাগত জীবিত ভাইরাস যদি দুর্বল করে শরীরে পুশ করা যায় তবে দীর্ঘসময় ইমিউনিটি পাওয়া সম্ভব।

তাই তিনি পোলিওর attenuated live virus তৈরি করলেন যা ওরাল ( মুখগহ্বর)রুটে প্রয়োগ করা সম্ভব এবং কার্যকারিতাও ভালো। কিন্তু বাদ সাধলো ফিল্ড ট্রায়াল করবেন কিভাবে? খোদ নিজে, সন্তান স্ত্রীকে খাওয়ালেন এবং দেখালেন এটা সম্ভব।

এরপরও VDPV (ভ্যাকসিন দ্বারা সৃষ্ট) এর সম্ভাবনা থেকে যায় যদিও সেটা নগন্য। কিন্তু তিনি যে বাণিজ্যিক উৎপাদন কররবেন তার ফান্ড পেলেন না।

এগিয়ে এলো সেসময়ের বিখ্যাত ঔষধ কোম্পানি Pfizer. স্যভিনের ভ্যাকসিনকে চিনির কিউবে মিশিয়ে ব্যবহার করা হলো যা দ্রুত জনপ্রিয়তা লাভ করলো।

স্যাভিনস ওরাল ভ্যাকসিন পরবর্তীতেWHO গ্রহন করে এবং স্যাভিনের ওরাল ভ্যাকসিনের মাধ্যমে ১৯৯৪ সালে Global polio eradication ম্যাপ করা হয়।

তাই রিন্ডারপেস্ট, গুটিবসন্তের মত পোলিও নির্মুল সম্ভবপর হয়েছে..

এখানে একটা Irony বলে রাখি Neither Salk nor sabin won Nobel prrize in medicine…..ভ্যাক্সিন

মো: তারিকুল ইসলাম সুজা
ইনফেকশাস ডিজিস এন্ড ওয়ান হেলথ রিসার্চার.
২০ ফেব্রুয়ারী, ট্যুর , ফ্রান্স

Please follow and like us:

About admin

Check Also

টাইটারের জন্যএইচ এ এবং এইচ আই টেস্ট কিভাবে করতে হয়,১% আর বি সি কিভাবে বানাতে হয়(শর্ট টেকনিক সহ)

টাইটারের জন্যএইচ এ এবং এইচ আই টেস্ট কিভাবে করতে হয়,১% আর বি সি কিভাবে বানাতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »
error: Content is protected !!