Breaking News
আলোর উজ্জলতা
আলোর উজ্জলতা

#ব্রয়লার_শেডে_আলোর_উজ্জ্বলতা

#ব্রয়লার_শেডে_আলোর_উজ্জ্বলতা
মেলাটোনিন একটি হরমোন যা সকল মেরুদন্ডী প্রাণীর মস্তিষ্কে অবস্থিত পিনিয়াল গ্লান্ড নামক একটি এন্ডোক্রাইন গ্লান্ড থেকে নিঃসৃত হয়। এই হরমোনটি সাধারনত রাতে, অন্ধকারে বা কম উজ্জ্বলতার আলোতেই নিঃসৃত হয়। এ কারনে এই হরমোনটিকে “অন্ধকারের হরমোন” বা “Hormone of Darkness” বলা হয়।

এই মেলাটোনিন হরমোনকে সাধারনত ঘুম ও অনিদ্রার জন্য দায়ী করা হলেও দৈহিক বৃদ্ধিতেও মেলাটোনিন হরমোন গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা রাখে। বিশেষ করে ব্রয়লারে দৈহিক বৃদ্ধিতে মেলাটোনিন পরোক্ষভাবে ভূমিকা রাখে।

মেলাটোনিন হরমোন, পিটুইটারী গ্লান্ড থেকে গ্রোথ হরমোন নিঃসৃত করতে সাহায্য করে। এই গ্রোথ হরমোন ব্রয়লারের দৈহিক ও ওজন বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। সুতরাং বলা যায়, ব্রয়লার শেডে আলোর উজ্জ্বলতা যদি হ্রাস করা যায় তবে ব্রয়লারে অধিক হারে মেনাটোনিন হরমোন নিঃসৃত হবে যা অধিক হারে গ্রোথ হরমোন নিঃসৃত করবে এবং ব্রয়লারের দৈহিক বৃদ্ধি ত্বরান্বিত করবে।

আমাদের দেশে বেশীর ভাগ ফার্ম ওপেন হাউজ সিস্টেমের হবার কারনে দিনের বেলা তীব্র উজ্জ্বলতার আলো শেডে প্রবেশ করে যা মেলাটোনিন নিঃসৃত হবার পরিমান হ্রাস করে। যা পরোক্ষভাবে গ্রোথ হরমোনের নিঃস্বরন কমিয়ে দিয়ে ব্রয়লারের ওজন হ্রাস করে। যদি এমন কোন পদ্ধতি ব্যবহার করা যায় যাতে ফার্মে তীব্র উজ্জ্বলতার আলো প্রবেশ করতে পারবে না এবং ফার্মে দিনের বেলাতেও হালকা অন্ধকার পরিবেশ বিরাজ করবে তবে এমন ফার্মে ব্রয়লার মুরগীরতে মেলাটোনিন নিঃসৃত হবার মাধ্যমে পরোক্ষভাবে গ্রোথ হরমোন নিঃসৃত হয়ে দৈহিক বৃদ্ধি ত্বরানিত করবে।

সাধারনত ১০-১৪ দিন পরে ব্রয়লার শেডে কম উজ্জ্বলতার আলো প্রদান করলে তা অধিক হারে মেলাটোনিন নিঃসৃত করার মাধ্যমে অধিক হারে গ্রোথ হরমোন নিঃসৃত করে বাড়তি ওজন বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

ডা শুভদত্ত

নারিশ পোল্ট্রি এন্ড্র হ্যাচারী লিঃ

Please follow and like us:

About admin

Check Also

পোল্ট্রি ব্যবস্থাপনা এক কথায় কি বুঝায়

পোল্ট্রি ব্যবস্থাপনা এক কথায় কি বুঝায় এক কথায় ফার্মের ব্যবস্থাপনা হল লুংগী পড়ে নদী পাড় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.