Breaking News

টার্কির রোগ ব্যাধি এবং ভ্যাক্সিন সিডিউল

রোগঃ

১।সালমোনেলোসিস(সালমোনেলা এরিজোনা) সালমোনেলা মুক্ত ব্রিডার থেকে আনতে হবে।

২।এ আই

৩।কলেরাঃ মৃত্য হার ৬০-৯০%,৬ সপ্তাহের বেশি বয়সে হয়,পানি বেশি খায়।

৪।টার্কি করাইজা(ব্রডেটেলা এভিয়াম)

৫।মাইকোটক্সিকোসিস (১০-১২ সপ্তাহে বেশি হয়)

৬।পক্স

৭।এরিসিপেলাসঃ হঠাত মারা যায়,মুখের রং পরিবর্তন.

৮।নিউমোনিয়া

৯।ব্লেক হেডঃ(হিস্টোমোনিয়াসিস) ১২ সপ্তাহের কম বয়সে হয়।পানি বেশি খায়।বেশি মারা যায়।

১০।ব্লুকম্ব বা টার্কি কড়োনা ভাইরাসঃ শরীর ঠান্ডা হয়ে যায়।হঠাত মারা যায়,মৃত্য হার ৫০-৯০%।.

১১।আমাশয় ও রানিক্ষেত মাইল্ড রুপে হয়।

১২।কৃমি( গেপ ওয়াম বা রেড ওয়াম,),.

১৩।নাভিকাচা।

১৪।সাইনোসাইটিস (ব্যাক্টেরিয়াল ডিজিজ)

১৫।হেক্সামাইটিয়াসঃ ৩-৮ সপ্তাহে হয়।

১৬।টার্কির যৌন রোগ(মাইকোপ্লাজমা মেলিয়াগ্রেডিস) ফারটিলিটি ও হ্যাচিং রেট কমে যায়।

১৭।প্যারাটাইফয়েড

১৮।সালমোনেলা পুলোরাম

১৯।মাইটস এবং উকুন।লিউকোসাইটোজোয়ান

২০।পায়ের বিভিন্ন রোগ ,প্যারলাইসিস

২১।রানিক্ষেত।(রানিক্ষেত হলেও তেমন মারা যায় না।)

২২।বডেটোলোসিস(Bordetelosis)

সব গুলো রোগের বিস্তারিত লেখা আছে

মেরেক্স,গাম্বোরু ও ব্রংকাইটিস তেমন  হয় না।

টিকাঃ

২-৫ দিন              রানিক্ষেত   চোখে ফোটা

৫-৭দিন       পিজন পক্স

৪ সপ্তাহে           রানিক্ষেত

৫ সপ্তাহে            মাইকোপ্লাজমার ডোজ

৭-৮ সপ্তাহ           কৃমি নাশক ও করাইজা

(টার্কির করাইজার টিকা বাংলাদেশে নাই)

৮-৯ সপ্তাহে    কলেরা

৯ সপ্তাহ  মাইকোপ্লাজমার ডোজ

৯-১০ সপ্তাহ        রানিক্ষেত

১৪-১৫ সপ্তাহ       কলেরাও করাইজা

১৬ সপ্তাহে      কৃমিনাশক ও মাইকোপ্লাজমার ডোজ

২৪ সপ্তাহ     কৃমিনাশক

প্রতি ২ মাস পর পর কৃমিনাশক দিতে হবে।

Please follow and like us:

About admin

Check Also

রোগের ইনকোবেশন পিরিয়ড

বিভিন্ন রোগের সুপ্তিকাল(ইনকিউবেশন পিরিয়ড)

রোগের সুপ্তিকাল রোগ.                        ইনকিউবেশন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »
error: Content is protected !!