Breaking News

অল্প খরচে_বেশি_পুষ্টি_পেতে_চান?-সাদা মাংস (ব্রয়লার মাংস) খান।

অল্প খরচে_বেশি_পুষ্টি_পেতে_চান?-সাদা মাংস (ব্রয়লার মাংস) খান।
কোয়ারেন্টিনের এই সময়টায় স্বল্প খরচে প্রোটিনের চাহিদা মেটাতে, স্থুলতা থেকে বাচতে, সুস্বাস্থ্য ধরে রাখতে সাদা মাংস (White Meat) খান, লাল মাংস (Red Meat) বর্জন করুন (পরিমানে কম খান)। আমাদের দেশে ভক্ষণকৃত লাল মাংসের মধ্যে অন্যতম হলো- গরু ও খাসীর মাংস, অপরপক্ষে সাদা মাংসের মধ্যে অন্যতম হলো- মুরগী ও হাসের মাংস। লাল মাংসে রয়েছে সম্পৃক্ত ফ্যাট, কার্নিটিন, বর্ধিত ক্যালরি যা হৃদরোগের ঝুকি বাড়ায় এবং শরীরের ওজন বাড়িয়ে দেয়। অপরপক্ষে সাদা মাংসে আছে চর্বিহীন প্রোটিন, সামান্য ক্যালরি যা আপনার সুস্বাস্থ্য ধরে রাখতে সহায়তা করে। কোয়ারেন্টিনের এই সময়টায় স্বপ্ল খরচে প্রোটিনের চাহিদা মেটাতে, স্থুলতা থেকে বাচতে, সুস্বাস্থ্য ধরে রাখতে মুরগীর মাংস বিশেষ করে ব্রয়লারের মাংস খান। আবার যেহেতু দামে স্বস্তা তাই গুজব না ছড়িয়ে গরীব ও নিম্ন-মধ্যবিত্ত মানুষগুলোকে ব্রয়লার মাংস খেতে উতসাহিত করুন, খাদ্য সহযোগিতার প্যাকেটগুলোতে ব্রয়লার মাংস দিন।
#কোনগুলো_লাল_মাংস_এবং_কেন_এদের_এড়িয়ে_চলবেন?
 সাধারনত স্তন্যপায়ী জন্তুদের মাংসকেই লাল মাংস বলা হয়ে থাকে। কারন এদের মাংসে অধিক পরিমানে মায়োগ্লোবিন (myoglobin) থাকে যার কারনে এদের মাংস দেখতে লাল রঙের হয়।
 যেসব প্রাণীর মাংস লাল মাংস হিসেবে ভক্ষণ করা হয়ঃ গরু, ছাগল, ভেড়া, মহিষ, বাইসন, হরিণ, শুকর, ঘোড়া, ঊট, লামা, রাজহাস, উটপাখি, ইমু ইত্যাদি।
 লাল মাংসে প্রচুর সম্পৃক্ত ফ্যাট রয়েছে যা রক্তে কোলেস্টেরলের (LDL) মাত্রা বাড়িয়ে দেয় যার ফলে হৃদরোগের ঝুকি বেড়ে যায়।
 লাল মাংসে রয়েছে প্রচুর কার্নিটিন, যা শরীরে কার্ডিওভাস্কুলার সমস্যা তৈরী করে।
 লাল মাংসে রয়েছে অতিরিক্ত ক্যালরি যার কারনে শরিরের ওজন অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পেতে পারে।
 লাল মাংসে রয়েছে আয়রন, জিংক, ভিটামিন-বি ১,২,৩,৬এবং১২ যা সাদা মাংসে অনেক কম পরিমানে বিদ্যমান। তবে আমাদের মনে রাখতে হবে এইসব ভিটামিন ও মিনারেলের চাহিদা পূরণের জন্য আমাদের খাদ্যতালিকায় শাক-সবজি ও ফল-মূল রয়েছে।
#কোনগুলো_সাদা_মাংস_এবং_কেন_খাবেন?
 মূলত মাছ ও গৃহপালিত পাখির মাংসকেই সাদা মাংস বলা হয়ে থাকে। এদের মাংসে কম পরিমানে মায়োগ্লোবিন (myoglobin) থাকে যার কারনে এদের মাংস দেখতে সাদা রঙের হয়।
 যেসব প্রাণীর মাংস সাদা মাংস হিসেবে ভক্ষণ করা হয়ঃ সকল প্রকার মাছ, গৃহপালিত পাখি (মুরগী, হাস, টার্কী), কিছু উড়ন্ত পাখি, খোলসযুক্ত ও খোলসবিহীন সামুদ্রীক প্রাণী (কুমির, এলিগ্যাটর) ইত্যাদি।
 চর্বিহীন প্রোটিনের সর্বোতকৃষ্ট উতস সাদা মাংস, এতে কোন ফ্যাট এবং শর্করা (carbohydrate) নেই।
 খেলোয়াড়, এথলেট এবং বডিবিল্ডারদের জন্য প্রোটিনের সর্বোতকৃষ্ট উতস।
 সাদা মাংসে রয়েছে প্রচুর চর্বিহীন প্রোটিন এবং তুলনামূলকভাবে খুবই কম ক্যালরি যা স্বাস্থের জন্য খুবই উপকারী।
 প্রতিদিন ৩ বেলা করে সাদা মাংস ভক্ষনেও শরীরে কোন খারাপ প্রভাব পরেনা।
#কোনটি_বেশি_পুষ্টিসম্পন্ন?
 United States Department of Agriculture এর মতে প্রতি ১০০ গ্রাম লাল মাংসে রয়েছেঃ ক্যালরি-২৪৭, ফ্যাট-১৯.০৭ গ্রাম, প্রোটিন-১৭.৪৪, আয়রন-১.৯৭ মিলি.গ্রাম, পটাশিয়াম-২৭৪ মিলি.গ্রাম, জিংক-৪.২৩ মিলি.গ্রাম, ভিটামিন-বি১২-২.১৫ মাইক্রো.গ্রাম।
 National Chicken Council, Washington, D.C. এর মতে প্রতি ১০০ গ্রাম সাদা মাংসে (ব্রয়লার) রয়েছেঃ ক্যালরি-১১৯, ফ্যাট-০৩.১০ গ্রাম, প্রোটিন-২১.৪০, আয়রন-০.৯০ মিলি.গ্রাম, সোডিয়াম-৭৭ মিলি.গ্রাম।
=> তাহলে দেখাযাচ্ছে পুষ্টিগুণ বিবেচনায় লাল মাংসের তুলনায় সাদা মাংস অনেক উচ্চমানের, কারন লাল মাংসের তুলনায় সাদা মাংসে অধিক পরিমানে প্রোটিন এবং কম পরিমানে ক্যালরি ও ফ্যাট রয়েছে যা খুবই স্বাস্থ্যকরও বটে।
#গরুর_মাংস_নাকি_ব্রয়লার_মাংস?
 www.tasteinc.com তাদের কাস্টোমারদের পুষ্টি চাহিদা পূরণের কথা বিবেচনা করে একটি গবেষণা করে, তারা এই গবেষণার নাম দেয়- Battle Of The Meats: Chicken VS Beef. তাদের গবেষণার ফলাফল সংক্ষেপে দেয়া হলঃ
প্রোটিনঃ ১০০ গ্রাম গরুর মাংসে-১৭%, ব্রয়লারের .
মাংসে-২১%
মানবদেহে এই প্রোটিনের শোষণ ক্ষমতাঃ
‌‌‌ গরুর মাংস-৭৪%, ব্রয়লার মাংস-৮০%
প্রাপ্ত নম্বরঃ গরুর মাংস-৪/৫, ব্রয়লারের
মাংস-৫/৫
ফ্যাটঃ গরুর মাংসে-অধিক সম্পৃক্ত ফ্যাট এবং ক্যালরি,
ব্রয়লারের মাংসে-তুলনামূলকভাবে খুবই কম।
প্রাপ্ত নম্বরঃ গরুর মাংস-৩/৪, ব্রয়লারের
মাংস-২/৪ (এখানে উল্লেখিতথাকে যে, বেশি
ফ্যাট অর্থাৎ বেশি মার্কিং মানে স্বাস্থ্যের জন্য
বেশি ক্ষতিকর)।
পূষ্টি উপাদানঃ যদিও গরুর মাংসে ব্রয়লারের তুলনায়
জিংক এবং ভিটামিন-বি বেশি রয়েছে
তারপরও অস্বাস্থ্যকর ফ্যাট, অতিরিক্ত ক্যালরি,
কোলেস্টেরলের কারনে এর পুষ্টিমান নিম্ন
বিবেচিত হয়।
প্রাপ্ত নম্বরঃ গরুর মাংস-৩/৫, ব্রয়লারের
মাংস-৪/৫
শক্তিঃ দেহে শক্তি সঞ্চারনের জন্য সকল মাংসই
অসাধারন। দেহে শক্তি সঞ্চালনের দিক দিয়ে
উভয় মাংসই প্রায় সমান।
প্রাপ্ত নম্বরঃ গরুর মাংস-৪/৪, ব্রয়লারের
মাংস-৪/৪
=> www.tasteinc.com এর গবেষণা মতে বিজয়ী- ব্রয়লারের মাংস।

ব্রয়লারের মাংস খুবই পুষ্টিকর, দামেও স্বস্তা। কিছু মানুষ গুজব ছড়িয়ে আমাদের এই স্বস্তা ও পুষ্টিকর মাংস ভক্ষণ থেকে বঞ্চিত করতে চায়। তাই আসুন আমরা এসব গুজবে কান না দিয়ে আমাদের সুস্বাস্থ্য রক্ষার্থে নিয়মিত এই সাদা মাংস-ব্রয়লারের মাংস খাই।
#Stay_Home
#Stay_Safe
Ashraful Sourov

Please follow and like us:

About admin

Check Also

পোল্ট্রির(ব্রয়লার) প্রসেস ফুড উৎপাদনকারী কোম্পানী ও তাদের প্রোডাক্টসের নাম ও দাম

পোল্ট্রির(ব্রয়লার) প্রসেস ফুড উৎপাদনকারী কোম্পানী ও তাদের প্রোডাক্টসের নাম ও দাম কোম্পানীর নাম ১।সিপি ২।কাজী …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »
error: Content is protected !!