AC/DC ইনকিউবেটর
AC/DC ইনকিউবেটর

সৌরবিদ্যুৎ এবং বিদ্যুৎ দ্বারা চালিত এ্যনার্জি সেভিং AC/DC ইনকিউবেটরের মূল্য এবং বৈশিষ্ট্য

সৌরবিদ্যুৎ এবং বিদ্যুৎ দ্বারা চালিত এ্যনার্জি সেভিং AC/DC ইনকিউবেটরের মূল্য এবং বৈশিষ্ট্য ঃ
প্রথমে এ্যনার্জি সেভিং ইনকিউবেটর সম্পর্কে জেনে নিই..
এই ইনকিউবেটর বিদ্যুৎ এবং ব্যাটারী দুইটাতেই চলবে, ব্যাটারী সৌরবিদ্যুৎ দ্বারা চার্জ দিয়ে সারা বছর শুধু সৌরবিদ্যুতে চালানো সম্ভব।
এটাতে ডিসি ১২ ভোল্টের সংযোগ এবং এসি ২২০ভোল্টের সংযোগ দেবার জন্য দুইটা পৃথক সংযোগ ব্যবস্থা রয়েছে।
কেউ যদি বিদ্যুৎ এবং ব্যাটারীতে একই সাথে লাগিয়ে রাখে তাহলে যতক্ষণ বিদ্যুৎ থাকবে ততক্ষণ বিদ্যুৎ দিয়ে চলবে,

বিদ্যুৎ চলে যাবার সাথে সাথে অটোমেটিক ব্যাটারীর সংযোগ চালু হয়ে ব্যটারী দিয়ে ইনকিউবেটর চলতে শুরু করবে,
বিদ্যুৎ এলে পুনরায় স্বয়ংক্রিয় ভাবে বিদ্যুৎ এ ইনকিউবেটর চলতে শুরু করবে,এভাবে সম্পূর্ণ অটোমেটিক নিয়ন্ত্রিত হবে।

*এই ইনকিউবেটরকে এ্যনার্জি সেভিং বা বৈদ্যুতিক পাওয়ার সাশ্রয়ী ইনকিউবেটর বলে উল্লেখ করার কারনঃ

ইনকিউবেটরের মূল কাজ হচ্ছে সঠিক তাপমাত্রা বজায় রেখে ডিম থেকে বাচ্চা ফুটানো,
ইনকিউবেটরে তাপ তৈরি করতেই সবচেয়ে বেশি বৈদ্যুতিক পাওয়ার খরচ হয়ে থাকে।
এই ইনকিউবেটরে হিটার, কুলিং ফ্যান এবং কন্ট্রোলার সহ ফুল লোডে চললে ১২ভোল্ট ৬২০মিলি এ্যম্পিয়ার কারেন্ট টানে, অর্থাৎ 12 v 620ma =7.44ওয়ার্ট বা সাড়ে ৭ওয়ার্ট, সেখানে ৮ওয়ার্ট ধরা হলো।
অর্থাৎ এই ইনকিউবেটর টি ফুল লোডে চললে প্রতি ঘন্টায় সর্বোচ্চ ৮ওয়ার্ট বিদ্যুৎ খরচ করতে পারবে,
এই ইনকিউবেটর ফুল লোড চলে ২০ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত অতিরিক্ত তাপমাত্রা উঠাতে পারে।
ইনকিউবেটরের পরিক্ষা চলাকালিন ৫০ডিঃ সেঃ পর্যন্ত তাপমাত্রা উঠানো হয়েছে, এবং মিটার দিয়ে এ্যম্পিয়ার মাপা হয়েছে।
কিন্তু এটা সব সিজনে ফুল লোডে চলবে না, কারন এটা ৮ ওয়ার্ট তখনই খরচ করবে যখন বাহিরের এবং
ইনকিউবেটরর তাপমাত্রার মধ্যে ২০ডিঃ সেঃ তাপমাত্রার পার্থক্য থাকবে ,
অর্থাৎ বাহিরে ১৭ডিঃ সেঃ তাপমাত্রা থাকলে।
প্রচন্ড শীতের সিজনে এটা ঘন্টায় ৮ ওয়ার্ট খরচ করবে।
কিন্তু গরম কালে ইনকিউবেটরের বাহিরের তাপমাত্রা যদি ২৯ ডিগ্রি সেঃ থাকে তাহলে এটা ঘন্টায় গড়ে ৪ ওয়ার্ট (4w) খরচ করবে,

অর্থাৎ বাহিরের অবহাওয়া গরম থাকার কারনে ইনকিউবেটরের হিটার এবং কুলিং ফ্যান গড়ে প্রতি ঘন্টায় ৩০ মিনিট চালু থাকবে।
তাহলে বুঝা গেল এটা গরম কালে ৪ ওয়ার্টে চলবে, শীতকালে সর্বচ্চো ৮ওয়ার্টে চলবে।

★★অন্য সাধারন ইনকিউবেটরের তুলনায় এই ইনকিউবেটরের কিছু পার্থক্য রয়েছে ৷

এই ইনকিউবেটরটি অত্যন্ত কম ব্যটারি খরচ করে চলে 4Wথেকে 8W সর্বোচ্চ খরচ করে, অর্থাৎ ফুল চার্জিত ২০০০
মিলি এম্পিয়ারের তিনটা মোবাইল ফোনের ব্যটারি সিরিজে সংযোগ করে ১২ভোল্ট বানিয়ে এই ইনকিউবেটর একটানা ৩ ঘন্টা
চালানো সম্ভব।
এই ইনকিউবেটর এসি ও ডিসি দুটোতেই চলে এবং এই ইনকিউবের মূলত ১২ভোল্ট ডিসিতে চলে তাই এটা সম্পূর্ণ নিরাপদ কোনো শক্ সার্কিটের ঝুঁকি নেই।★★

খন জানবো কত ওয়ার্ট সৌরবিদ্যুৎ এবং কত এ্যম্পিয়ার ব্যটারি হলে এটা সম্পূর্ণরূপে সৌরবিদ্যুতে চালানো সম্ভব।

যদি কোনো এলাকায় বিদ্যুৎ না থাকে তাহলে এটা সৌরবিদ্যুতে চালানো যাবে।
মূলত সৌরবিদ্যুতে সকল বৈদ্যুতিক যন্ত্রই চালানো সম্ভব, তবে কোনো বৈদ্যুতিক যন্ত্র যদি বৈদ্যুতিক পাওয়ার সাশ্রয়ী হয় তাহলে স্বল্প
ওয়ার্টের ছোট সৌরবিদ্যুৎ এবং কম এ্যম্পিয়ার ব্যাটারী দ্বারা সেই বৈদ্যুতিক যন্ত্রকে দীর্ঘ সময় চালানো সম্ভব হয়।
সেই বিষয় গুলোর কথা চিন্তা করেই ইনকিউবেটরকে স্বল্প ওয়ার্টে চলার মতো করে ডিজাইন করেছি,

যার ফলে ইনকিউবেটর চালানোর জন্য সৌরবিদ্যুৎ এবং ব্যাটারী সবার ক্রয় ক্ষমতার মধ্যেই থাকবে।
*গরমকালেঃ ঘন্টায় যদি ৪ ওয়ার্ট খরচ করে তাহলে ২৪ঘন্টায় মোট ৯৬ ওয়ার্ট বিদ্যুৎ খরচ করতে পারবে।

১২ভোল্ট ৮এ্যম্পিয়ার আওয়াড় ব্যটারি হলে এটা ২৪ ঘন্টা একটানা চলবে।
(তবে ব্যাটারীকে ফুল ডিসচার্জিং করা ঠিক নয়, তাই ওখানে ১২ভোল্ট ১০ এ্যম্পিয়ারের বেশী ব্যাটারী ব্যবহার করা উত্তম।
১২ভোল্ট ৮এ্যম্পিয়ার ব্যাটারীকে ১০ ওয়াট সোলার প্যানেল থেকে ৮ ঘন্টায় চার্জ দিলে প্রায় ৫০% চার্জ উঠানো সম্ভব ৷

কিন্তু ২৪ ওয়ার্ট সোলার প্যানেল হলে ঐ ব্যাটারীতে ৮ঘন্টায় ফুল চার্জ উঠবে,২৪ ওয়ার্ট প্যানেল পাওয়া যায় না,
তাই ২৪ ওয়ার্টের পরিবর্তে ২০ওয়ার্ট ব্যবহার করা যাবে।

এতে সৌরবিদ্যুৎ এ ৮ঘন্টায় ব্যটারিতে যে পরিমান চার্জ উঠবে, সেই চার্জে পরবর্তী ২৪ ঘন্টা চলবে,

পরের দিন আবার চার্জ হবে এভাবে সারা মাস সৌরবিদ্যুৎ এ ইনকিউবেটর চলতে পারবে।

*শীতকালে ( ইনকিউবেটরের বাহিরের তাপমাত্রা ১৭ডিঃসেঃ থাকলে)ঃ

ঘন্টায় যদি ৮ ওয়ার্ট খরচ করে তাহলে ২৪ ঘন্টায় মোট ১৯২ ওয়ার্ট খরচ করতে পারবে।
১২ভোল্ট ১৬ এ্যম্পিয়ার ১আওয়াড় ব্যাটারী হলে এটা ২৪ ঘন্টা একটানা চলবে।

১২ভোল্ট ১৬ এ্যম্পিয়ার ব্যটারীকে ২৪ ওয়াট সোলার প্যানেল দিয়ে চার্জ দিলে ৮ ঘন্টায় ৫০% চার্জ উঠানো সম্ভব ৷

কিন্তু ৪0 ওয়ার্ট সোলার প্যানেলে হলে ৮ঘন্টায় ব্যটারিতে পরবর্তী ২৪ ঘন্টা চলার মত চার্জ উঠানো সম্ভব ।
(এখানে সৌরবিদ্যুতের কার্যকারিতা গড়ে ৫০% ধরা হয়েছে,
এবং ওয়ার্ট হিসেব করে ব্যটারির এ্যম্পিয়ার এবং সোলারের ওয়ার্ট বের করা হয়েছে, তাই উক্ত ওয়ার্টের সোলার বা ঐ এ্যম্পিয়ারের ব্যটারি না পাওয়া গেলে তার চেয়ে একটু বেশি ওয়ার্টের সোলার বা ব্যটারি ব্যবহার করা যাবে।

তবে একটা বিষয় গুরত্বের সাথে বিবেচনা করতে হবে

সোলার ব্যাটারী চার্জার কন্ট্রোলারটিতে অবশ্যই কারেন্ট কন্ট্রোল নিয়ন্ত্রের সুবিধা থাকতে হবে )
* এখন জানবো ইনকিউবেটর টি শুধু বিদ্যুৎ এ চালালে মাসে সর্বচ্চো কত ইউনিট বিদ্যুৎ খরচ করতে পারবে।

*এই ইনকিউবেটরটি এসি ২২০ ভোল্টে চলাকালিন এসি টু ডিসি পাওয়ার সাপ্লাইকে সর্বদা ঠান্ডা রাখাতে
ওখানে ৩ ওয়ার্ট কুলিং ফ্যন ব্যবহার করা হয়েছে, ইনকিডিবেটর টি এসিতে চলাকালিন পাওয়ার
সাপ্লাইয়ের কুলিংফ্যন সহ ঘন্টায় সর্বচ্চো ১১ ওয়ার্ট বিদ্যুৎ খরচ করতে পারবে।
একমাস অর্থাৎ ৭২০ ঘন্টা একটানা এই মেশিন এসি বিদ্যুতে চালালে সর্বচ্চো ৯ ইউনিট বিদ্যুৎ খরচ করতে পারবে।

★ইনকিউবেটরের বৈশিষ্ট্য সমূহঃ

*(১)ইনকিউবেটরের বডি তৈরি করা
হয়েছে তাপমাত্রা নিরোধক টেম্পাকেয়ার ইনসুলেটর কর্কশীট এবং
বাহির পৃষ্ঠে লাগানো হয়েছে ইউ পিভিসি শীট ।
*(২)এই ইনকিউবেটরর টি সিঙ্গেল চিপ মাইক্রো কম্পিউটর সার্কিট দ্বারা নিয়ন্ত্রিত ইনকিউবেটর।
ইনকিউবেটরে লাগানো হয়েছে উন্নত মানের ওয়াটার প্রুফ ট্যম্পারেচার সেন্সর।

*(৩)এই ইনকিউবেটরে রয়েছে অটোমেটিক টেম্পারেচার কন্ট্রোল ব্যবস্থা।

*(৪)এই ইনকিউবেটরে রয়েছে অটোমেটিক ওভার টেম্পারেচার কন্ট্রোল ব্যবস্থা।

*(৫)এই ইনকিউবেটরে চাহিদা অনুযয়ী ম্যানুয়ালী তাপমাত্রা সেট করার ব্যবস্থা রয়েছে।

* (৬)এই ইনকিউবেটরে রয়েছে হাই টেম্পারেচার এ্যর্লাম সিষ্টেম, যদি কখনো সেটকৃত তাপমাত্রা থেকে
ইনকিউবেটরের ভিতরের তাপমাত্রা
বেড়ে বিপদজনক তাপমাত্রায় চলে যায়………..তাহলে এ্যর্লাম বেজে উঠবে, ডিস্পেলেতে Hi.-লেখা এবং
১টা LED লাইট জ্বলা-নিভা হতে থাকবে।

*(৭)এই ইনকিউবেটরে রয়েছে লো টেম্পারেচার এ্যর্লাম সিষ্টেম, যদি
কখনো তাপমাত্রা কমে গিয়ে বিপদজনক লো-লেভেলে নেমে যায়.
….. তাহলে এ্যর্লাম বেজে উঠবে এবং ডিস্পেলেতে Lo. _ লেখা এবং ১টা
LED লাইট জ্বলা-নিভা হতে থাকবে।
এখানে উল্লেখ কেউ যদি ইনকিউবেটর টি দীর্ঘ সময় খুলে রাখার প্রয়োজন বোধ করেন, তাহলে সাময়িকভাবে এ্যর্লাম বন্ধ রাখার ব্যবস্থা রয়েছে।

(উল্লেখ্য যে, লো টেম্পারেচার এবং হাই টেম্পারেচার এ্যর্লাম সিকুরিটি সিষ্টেম থাকার জন্য
তাপমাত্রার সমস্যা জনিত কারনে ইনকিউবেটরে ডিম নষ্ট হবার সম্ভবনা নেই, ডিমের ভিতরে ভ্রুনের ক্ষতি
হতে পারে এমন তাপমাত্রার কাছাকাছি গেলেই এ্যর্লাম বেজে উঠবে।)

* (৮) এই ইনকিউবেটরের ডিসপ্লেতে ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড সেলসিয়াস তাপমাত্রা দেখা যাবে, এবং HTC
ডিসপ্লেতে হিউমিডিটি দেখা যাবে।

*(৯)এই ইনকিউবেটরে রয়েছে ইমার্জেন্সি হিমিউডিটি কন্ট্রোল
সুইচ, ঐ সুইচ চাপ দিয়ে ধরে থাকলে জরূরী অবস্থায় ১০%পর্যন্ত হিমিউডিটি কমানো যাবে।
(জরুরী অবস্থায় আদ্রতা নিয়ন্ত্রনের ব্যবস্থা থাকাতে, আদ্রতার সমস্যা
জনিত করানে ডিম নষ্ট হবার সম্ভবনা একেবারেই কম)

*(১০) এই ইনকিউবেটরের কন্ট্রোলারের ডিসপ্লেতে রয়েছে আকর্ষনীয় তিনটা ফিচার, যেটা
ব্যাটারী সেভ করার জন্য ব্যবহার করা হয়েছে,সেগুলো হচ্ছে P-0, P-1 ও P- 2 । P-0 তে সেটিং করলে ডিসপ্লেটি
সারক্ষণ জ্বলে থাকবে।
P-1 তে সেটিং করলে ডিসপ্লেটি ৮ সেকেন্ড পর পর ডিসপ্লে টা২
সেকেন্ডের জন্য জ্বলে উঠবে।
P-2 তে সেটিং করলে
ইনকিউবেটরের সামনে গেলে ডিসপ্লেটি জ্বলে উঠবে,অথবা যে
কোন বাটনে চাপ দিলে ১০ সেকেন্ডের জন্য ডিসপ্লেটি জ্বলে থাকবে ৷
এছাড়া ডিসপ্লে বন্ধ থাকা কালিন ডিসপ্লের মধ্যে একটা . বিন্দু কিছুক্ষণ পর পর জ্বলা-নিভা করে সিগনাল দিয়ে কন্ট্রোলারটি স্বক্রিয় আছে বা কাজ করছে তা প্রকাশ করবে ।
এগুলো মূলত ডিসপ্লেতে সারাক্ষণ জ্বলে থাকলে যে ব্যাটারী খরচ
হতো সেটা বাঁচানোর জন্য যুক্ত করা হয়েছে।

★(১১)এই ইনকিউবেটরে রয়েছে ‘ব্যাটারী লো’ সিগনাল ব্যবস্থা, যদি কখনো ব্যাটারী চার্জ না
থাকার কারনে, ঐ ব্যাটারী থেকে ইনকিউবেটর লোড নিতে না পারে,
তখন কন্ট্রোলার বার বার এলার্ম বিপ সাউন্ড দিতে থাকবে ।

*(১২)এই ইনকিউবেটরের কন্ট্রোলারটি ১২ভোল্ট থেকে ৫ ভোল্ট পর্যন্ত চালু থাকে।

★(১৩) ইনকিউবেটরে লাগানো
হয়েছে মোশন সেন্সর (PIR Motion sensor) , এতে করে সার্বক্ষনিক
ডিসপ্লেকে জ্বালিয়ে না রেখে, শুধুমাত্র প্রয়োজনের সময় স্বয়ংক্রিয়
ভাবে ডিসপ্লেটি জ্বালিয়ে দিয়ে
…. পাওয়ার সেভ করবে এবং কন্ট্রোলারের পাওয়ার আইসিটি
সবসময় ঠান্ডা রাখবে, এতে দীর্ঘস্থায়ী হবে ৷

(১৪) এই ইনকিউটবেটরের কট্রোলারে রিলের পরিবর্তে ট্রানজিষ্টর ও মসফেট দ্বারা সুইচিং করা হয়েছে,
এতে করে বৈদ্যুতিক পাওয়ার অপচয় রোধ করে … যা খুবই গুরত্বপূর্ণ ৷
এর বৈশিষ্ট্য ইনকিউবেটরের সামনে যখন কেউ যাবে তখনই অটোমেটিক
ইনকিউবেটরের ডিসপ্লে জ্বলে উঠে তাপমাত্রা দেখাবে,এবং ইনকিউবেটরের সমানে থেকে চলে
আসলে ডিসপ্লে অটোমেটিক বন্ধ হয়ে যাবে ৷

আপনি যদি রাতের অন্ধকারেও ইনকিউবেটরের সামনে যান তবুও ইনকিউবেটর আপনার উপস্থিতি টের পেয়ে ডিসপ্লে দেখাবে,

এতে ডিসপ্লে অপ্রজনীয় সময়ে বন্ধ থাকার
ফলে ৪০ মিলি এম্পিয়ার বিদ্যুৎ খরচ বেঁচে যাবে।

*ইনকিউবেটরের মূল্যঃ
★ইনিকিউবেটরের ধারন ক্ষমতা ৮০ থেকে ৮৫ডিম।
★★মোশন সেন্সর সহ ইনকিউবেটরটির

মূল্য ৭৮০০(সাত হাজার আটশত) টাকা।

*মোশন সেন্সর ছাড়া ইনকিউবেটরটির মূল্য ৭৫০০(সাতহাজার পাঁচশত)
টাকা★★
★ইনকিউবেটর টিতে নির্দিষ্ট করে কোনো গ্যারান্টি দেয়া হবে না,
তবে যদি কখনো কোনো যন্ত্রিক ত্রুটি হয় তাহলে শর্ত সাপেক্ষে
সেটা আমার থেকে মেরামত করে নেবার সুবিধা পবেন।

★ইনকিউবেটরটি বুকিংএর ক্ষেত্রে
অগ্রীম কোনো অর্থ দেবার প্রয়োজন
নেই, ইনকিউবেটর তৈরি সম্পূর্ণ হলেই
সম্পূর্ণ মূল্য পরিশোধ করতে হবে ৷
মূল্য পরিষোধের ৩ ঘন্টার মধ্যে
কুরিয়ারে করা হবে, (রাস্থায় জানজট
থাকলে বা অন্য কোনো কারন
থাকলে কিছু সময় দেরী হতে পারে)।
ইনকিউবেটর প্যাকিং খরচ এবং
পরিবহন খরচ ক্রেতার।

 

আব্দুল ওহাব (০১৭৪৬ ৬০৯২২০)

About admin

Avatar

Check Also

হ্যাচারীতে প্রাপ্ত বিভিন্ন বাচ্চা

হ্যাচারীতে প্রাপ্ত বাচ্চার বিভিন্ন অবস্থা এবং হ্যাচারী ম্যানেজমেন্টের বিষয়াবলী-

হ্যাচারীতে প্রাপ্ত বাচ্চার বিভিন্ন অবস্থা এবং তার সাথে সম্পর্কিত হ্যাচারী ম্যানেজমেন্টের বিষয়াবলী- ১. Early hatch ...

Translate »
error: Content is protected !!