Breaking News

সেনাবাহিনীতে ঘোড়ার অবদানঃ

সেনাবাহিনীতে ঘোড়ার অবদানঃ

>সর্বশেষ আধুনিক অস্ত্র হিসেবে খ্যাত পারমাণবিক অস্ত্র।কিন্ত লেটেস্ট আবিষ্কৃত EMF(Electro Magnetic Field) ইলেক্ট্রো ম্যাগনেটিক ফিল্ড একেও ধরাশায়ী করেছে।কারণ এইটা এমন একটা চুম্বক আকর্ষণ তৈরী করে যার মধ্য দিয়ে সব লৌহ জাতিয় অস্ত্র আটকে যায়।ইসরাইল, রাশিয়া EMF এর কয়েকটা সফল পরীক্ষাও চালিয়েছে।তাই এই অস্ত্র নিয়ে বর্তমানে সব শক্তিধর দেশই লুকিয়ে লুকিয়ে গবেষণা চালাচ্ছে।
কিন্ত আমি যা বলতে চাচ্ছি তা হল ঘোড়াকে কিন্ত এই অস্ত্র দিয়েও ঢেকানো সম্ভব না,যেখানে সকল গাড়ি (ইস্পাত /লোহা দিয়ে তৈরী) কে ঢেকানো সম্ভব।

>দূর্যোগপূর্ণ মূহুর্তে যখন আপনার যাতায়াতের জন্য গাড়ির তেল থাকবে না,তখনও আপনার ঘোড়া অনায়াসে ঘাস খেয়েই আপনাকে বয়ে নিয়ে যেতে পারবে।

>আপনার শত্রু ঘোড়ার কাছে আসলে তাকে সে মারতে উদ্যত হবে।

>রসদ না থাকা সত্ত্বেও আপনি অনায়াসে বর্ডার অঞ্চল /দূর্গম জংগলে বা ঝোপঝাড়ে যাতায়াত করতে পারবেন।

>পাহাড়, নদী,স্থলে সমতালে চলমান কোন গাড়ি যেতে পারবে না,যেটা কিনা আপনার ঘোড়াটা অনায়াসেই পারবে।

>সেনাবাহিনীর স্পেশাল ফোর্স কে কিন্ত ঘোড় দৌড় না শিখলে চলবেই না,যেটা আপনি অতি সহজেই শিখতে পারবেন শুধু একটা ঘোড়া থাকলে।

>শরীরের ফিটনেস ঠিক রাখতে চাচ্ছেন, কতশত প্লান,জীমে টাকা খরচ, ঘাম ঝড়ানো।তার আদিঅন্ত নেই,কিন্ত একটা ঘোড়া যদি নিয়ম করে চালান,এতেই আপনার ফিটনেস ঠিক থাকবে।

>ঘোড়ার দিয়ে খুব দ্রুত শত্রু বাহিনীর কাছে যাওয়া যায়,ফলে এত্ত দ্রুত আক্রমণের সুযোগ অন্য কোন উপায়ে করা সম্ভব না।

>ঘোড়া তার চোখ পিছনের দিকে অনেক বেশী এংগেলে ঘুরাতে পারে,ফলে আপনার পাশ থেকে বা পিছনে থেকে/ কোণাকুণি আক্রমণের হাত থেকে অতি সহজেই বেচে যাবেন আপনি।

#NI Manik
#vetvisitors

Please follow and like us:

About admin

Check Also

বিলুপ্তপ্রায় পাঁচটি প্রাণী- রাজশকুন, ঘড়িয়াল, মিঠাপানির কুমির, নীলগাই এবং শুশুক

বর্তমান সময়ে জীববৈচিত্র্য পড়েছে মহা সংকটে। ইতোমধ্যেই বিলুপ্ত হয়ে গেছে তালিকাভুক্ত অসংখ্য প্রজাতির উদ্ভিদ ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »
error: Content is protected !!