Breaking News

পোষা পাখির বাচ্চাকে হ্যান্ড ফিডিং এবং করণীয়ঃ

পাখির বাচ্চাকে হ্যান্ড ফিডিং এবং করণীয়ঃ
হ্যান্ড ফিডিং মানে পাখির বাচ্চাকে নিজ হাতে খাইয়ে দেয়া…নানা কারনেই পাখির বাচ্চাকে হ্যান্ড ফিডিং করাতে হয় এর মাঝে বাচ্চাকে তার বাবা-মার না খাওয়ানো/কোন কারনে বাবা-মার মারা যাওয়া অথবা উড়ে যাওয়া অন্যতম… এছাড়া আমাদের মাঝে অনেকেই টেমিং এর উদ্দেশেও পাখির বাচ্চাকে হ্যান্ড ফিডিং করিয়ে থাকেন… এক্ষেত্রে আপনার যে বিষয়টি মনে রাখতে হবে সেটা হল বাচ্চাটি আখন পুরোপুরিভাবে খাবারের জন্য আপনার উপর নির্ভরশীল অর্থাৎ আপনিই এখন থেকে তার বাবা আপনিই তার মা।
হ্যান্ড ফিডিং এ যা খেতে দেবেন-
বাজারে পাখির বাচ্চাকে হ্যান্ড ফিডিং করানোর জন্য হ্যান্ড ফিডিং ফর্মুলা কিনতে পাওয়া যায়… “KAYTEE র exact hand feeding formula” এক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারেন।এছাড়াও আপনি ইচ্ছা করলে নিজেই ঘরে বসে খাবার বানাতে পারেন(ডিমের কুসুম,বিস্কুটের গুঁড়া,ছোলা(খোসা ছাড়া)/বুটের ডাল যে কোন একটি পেস্ট করে সাথে হাল্কা পানি মিক্স করে দিতে পারেন… উপরের এগুলো না ব্যবস্থা করতে পারলে… আপনি আপনার পাখির বাচ্চাকে “corn flour” দিতে পারেন(বাজারে যে কোন কনফেনশনারি দোকানে পাওয়া যায়). “corn flour” এর সাথে হাল্কা পানি মিক্স করে খাওয়াতে হবে…মাঝে মাঝে ভেজা পাওরুটিও খেতে দিতে পারেন।
খাবার খাওয়ানোর জন্য আপনার যা দরকার হবে-
এ জন্য বাজারে একটি বিশেষ ধরনের সিরিঞ্জ পাওয়া যায় সেটি কিনে নিতে পারেন…এছাড়াও ২০ মি.লি র যে সিরিঞ্জগুলো পাওয়া যায় সেগুলো ব্যবহার করতে পারেন এগুলো সাধারন ফার্মেসির দোকানেই কিনতে পাওয়া যায়।
করনীয়ঃ
১/খাবার খুব ভাল ভাবে মিক্স করে দেয়া যেন কোন শক্ত অংশ না থাকে…কেননা শক্ত থাকলে তা পাখির গলায় আটকে যেতে পারে।
২/খাবারের সাথে পানি মিক্স করবার পূর্বে তা হাল্কা কুসুম গরম করে নেয়া…
৩/খাবার একবারে বেশি করে না বানিয়ে প্রতিবার খাওয়ানোর পূর্বে পরিমান মত করে বানিয়ে খাওয়ানো।
৪/বাচ্চাকে যদি বাবা-মা’র সাথে রাখা সম্ভব না হয় সেক্ষেত্রে-
*পাখির বাচ্চার জন্য এমন একটি থাকার জায়গার ব্যবস্থা করতে হবে যেটি বিড়াল/ইঁদুর/চিকা/ টিকটিকি/তেলাপোকার উপদ্রব থেকে সম্পূর্ণরুপে মুক্ত।
*পাখির বাচ্চা যেন সঠিক তাপমাত্রা পায় সেজন্য লাইটের ব্যবস্থা করা…শীতকাল/বৃষ্টির দিনে এটির আবশ্যকতা জরুরী।কেননা বাচ্চা যখন তার বাবা-মা’র সাথে থাকে তখন তারা সঠিক তাপমাত্রা পেয়ে থাকে…কিন্তু বাইরে থাকলে এটা সম্ভব হয় না…তাই আমাদের এটার দিকে খেয়াল থাকতে হবে।
*বাচ্চা রাখার জন্য এমন পাত্রের ব্যবস্থা করতে হবে যেখান থেকে যেন বের হয়ে অন্যত্র যেতে না পারে এবং নিচে নরম কাপড়ের ব্যবস্থা করতে হবে।
৫/পাখির বাচ্চাকে হ্যান্ড ফিডিং করানোর সময় খাবার থলির দিকে লক্ষ রাখতে হবে যেন বেশি পূর্ণ না হয়ে যায়…প্রতি ২-৩ ঘণ্টা পর পর পাখির বাচ্চার খাওয়ানোর বিষয়টি মনে রাখতে হবে।
বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ পূর্ব অভিজ্ঞতা না থাকলে/ confidence এর অভাব থাকলে এটিতে না যাওয়াই ভাল… সেক্ষেত্রে আপনি অভিজ্ঞ কারও হেল্প নিতে পারেন…যারা শুধুমাত্র টেম করবার জন্য পাখিকে হ্যান্ড ফিডিং করাবেন বলে ভাবছেন তারা এমন বাচ্চা সংগ্রহ করুন যেগুলো নিজ থেকে খাবার খেতে শিখেছে…মনে রাখবেন পর্যাপ্ত সময় ও যত্ন নিলে যে কোন বয়সের বাচ্চা পাখিই টেম করা সম্ভব।

ডা মহিউদ্দিন তারেক

Please follow and like us:

About admin

Check Also

বাজেরিগার #পাখির #খাদ্য

বাজেরিগার #পাখির #খাদ্য বাজেরিগার সিটাসিয়ান গ্রুপের একটি পাখি। এদের মূল আদিনিবাস অস্ট্রেলিয়া হলেও এখন পৃথীবির সব দেশে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »
error: Content is protected !!