ব্যবস্থাপনা(কোয়েল)

ফার্মে মাছি ও ইঁদুর ,মশা,জোক কেন হয়, কি কি রোগ ছড়ায় এবং করণীয় (বিস্তারিত)

ইঁদুর

মাছি কিভাবে ক্ষতি করে; #খামারে_অত্যাধিক_মাছি_হবার_কারনঃ ১. মাছি ১৬-৪০ ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রার মাঝে ভাল বংশবৃদ্ধি করতে পারে। ১২ ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রার নীচে এদের বংশবৃদ্ধি বন্ধ হয়ে যায়। এবং তাপমাত্রা বৃদ্ধির সাথে সাথে এরা সক্রিয় হয় এবং বংশবৃদ্ধি ঘটায়। তবে ৪৫ ডিগ্রী সেন্টিগ্রেডের উপর তাপমাত্রায় মাছির ডিম ও লার্ভা মারা যায়। ২. ...

Read More »

পোল্ট্রি স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা

পোল্ট্রি স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা (পর্ব-১) পোল্ট্রি স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনার দিক থেকে পোল্ট্রিতে দুটি স্তর বা মাত্রায় রোগের তীব্রতা দেখা যায়। ১. সাব-ক্লিনিক্যাল (sub-clinical): সাব-ক্লিনিক্যাল হলো সেই অবস্থা যখন ফ্লকে রোগের কোন লক্ষ্যণ পরিলক্ষিত হয় না।অর্থাৎ বার্ডস্ (ফ্লক) কোন প্রকার অসুস্থতা প্রদর্শন করে না।কিন্তুু উক্ত ইনফেকশানের কারনে গ্রোথ ধীরগতি হয়ে যায়।আবার ফ্লকের সাব-ক্লিনিক্যাল ...

Read More »

পোল্ট্রির প্রডাকশন কমে যাবার কারণ:বিস্তারিত

ক।পোল্ট্রির প্রডাকশন কমে যাবার কারণ: লেয়ারে ১৮-২১ সপ্তাহে প্রডাকশন শুরু হয়,কোন কোন এলাকায় ২০-২১ সপ্তাহে ৪০-৫০% চলে আসে আবার কিছু এলাকায় বা কিছু ফার্মে  ২৩ সপ্তাহে ৫০% আসে,২৫-৩০সপ্তাহে পিক প্রডাকশন ৯০-৯৫% হয়।৬০ সপ্তাহে ৮৫-৯০% থাকে,৮০ সপ্তাহে ৮০-৮৫% থাকে,৮৫-১০০ সপ্তাহে কালিং হয়। একটু কম বেশি হতে পারে। প্রডাকশন আপ ডাউন হবার ...

Read More »

সফলভাবে হাঁস খামার করতে চাইলে বিবেচ্য ফ্যাক্টর

সফলভাবে হাঁস খামার করতে চাইলে বিবেচ্য ফ্যাক্টর ও তার সাথে জরিত রিস্ক ফ্যাক্টর সমূহ নিম্ন রূপ হতে পারে – 1- জাত, 2- খাদ্য, 3-বাসস্থান, 4- চিকিৎসা। আজ শুধু জাত নিয়ে কিছু কথা লিখব। জাতঃ- সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টর। উন্নত জাতের বাচ্চা সংগ্রহ করতে না পারলে খামার লাভজনক করা কঠিন। উন্নত জাতের ...

Read More »

আসছে শীত এখনই সতর্ক হোন

অাসছে শীত এখনই সতর্ক হোন★ ——————————- বাংলাদেশে শীতের শুরুতে এবং শেষে টার্কি ও অন্যান্য পোল্ট্রি খামারীরা সবচেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এই দুই সময়ই দিন ও রাতের তাপমাত্রার মধ্যে ব্যাপক তারতম্য ঘটে। দেখা যায় দিনে প্রচন্ড গরম এবং রাতে হঠাৎ ঠান্ডা পরে যায়। এছাড়াও শীতের শুরুতে বিভিন্ন শীত প্রধান দেশ হতে ...

Read More »

দেশি মুরগির টিকার সিডিউল

.৩-৭দিনে রানিক্ষেত বিসি আর ডি বি এফ স্ট্রেইন ১ফোটা করে ২ চোখে   ১২-১৯দিনে আই বিডি  ১ফোটা করে ১চোখে এবং ৭দিন পর আবার দিতে হবে।   ২১দিনে বি সি আর ডি বি ব্রুস্টার   ৩৫দিনে পক্স পাখায়   ৬০দিনে রানিক্ষেত কিল্ড(এম স্ট্রেইন) ১এম এল করে  পায়ের মাংসে .৬মাস পর আবার ...

Read More »
Translate »
error: Content is protected !!